মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

মামলার আবেদন

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

বিষয়ঃ মৌরশী সম্পত্তি জবর দখল করার চেষ্টাকারীদের প্রতিকার প্রসঙ্গে।

বাদীঃ জনাব মোঃ মোজাম্মেল হক পিতাঃ মৃত কবির আহমদ সাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ০৬,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                                      বনাম

বিবাদীঃ ১.জনাবা নুর জাহার বেগম স্বামীঃ নুরম্নল আলম

         ২. জনাব নুরম্নল আলম পিতাঃ মৃত মোহাম্মদ মিয়া

         সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ০৬,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

1)     বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

2)    নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদীর মৌরশীমূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়।উক্ত তপশীলের  জায়গা কেরামত আলী পিতাঃ মৃত ওয়াহেদ আলী এর ত্যাজ্য সম্পত্তি হয়।উক্ত কেরামত আলীর মৃত্যুর পর তাহার দুই পুত্র এজাহার মিয়া ,নজু মিয়া ও এক কন্যা পরান বিবি উক্ত তপশীলের সম্পত্তির মালিক হয়।এজাহার মিয়ার মৃত্যুর পর তাহার তিন পুত্র কালা মিয়া কবির আহমদ এবংশফিক আহমদ মরহুমের সম্পত্তি মালিক হয়। কবির আহমদ মৃত্যুবরন করিলে বাদী ও বাদীর ভাই/বোন কবির আহমদের সম্পত্তির মালিক হয়।উক্ত তপশীলের জায়গা বাদীগং এর দখলে স্থিত আছে।কিন্তু উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ গায়ের জোরে উক্ত তপশীলের  জায়গা দখল করার জন্য নানাভাবে পাঁয়তারা করছে এবং বাদী ও বাদীর ভাইদের নানা প্রকার হুমকি প্রদান করছে। বাদী স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------২২/০৬/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃশাহমীলপুর

আর,এস খতিয়ান নং২৩৮৬/১৪২৪ দাগ নং ১০২/১০১

বি,এস দাগ নং ১২৭/১২৬

সর্বমোট ৩০শতক বা ১৫ গন্ডা

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

        বিষয়ঃ খরিদা সম্পত্তি জবর দখলকারীদের বিরম্নদ্ধে প্রতিকার প্রসঙ্গে।

          বাদীঃ জনাব মোঃ আবদুলস্নাহ চৌধুরী পিতাঃ মৃত ওবায়দুর রহমান চৌধুরী সাং বড়ঊঠান ,ওযার্ড

        নংঃ০৩,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                                      বনাম

    বিবাদীঃ ১.জনাব জালাল আহমদ  পিতাঃ মৃত  আবুল খায়ের    

        ২. জনাব ইউনুছ রানা  পিতাঃ ছিদ্দিক আহমদ

    সর্বসাং বড়উঠান ,ওয়ার্ড নংঃ০৮ ,থানাঃ পটিয়া, জেলাঃ চট্টগ্রাম।

         ৩.বাবু শিবু ধর পিতাঃ মৃত মনোরঞ্জন ধর

         ৪. জনাব মিলন ধর(পুলু ধর) পিতাঃ ঐ

         সর্বসাংদৌলতপুর ,ওযার্ড নংঃ০৩,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 জনাব,      

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

3)    বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

4)     নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদীর খরিদা মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। বিগত ১৪/০৬/২০১২ ইংরেজী তারিখে উপবে বর্ণিত বাদী জিরি গ্রামের জনৈক মোঃ রফিকের নিকট হইতে রেজিস্ট্রি মূলে উক্ত তপশীলের ১০ শতক জাযগা খরিদ করে । বাদী পরিমাপ করিয়া তাহার নিকট হইতে জায়গা দখল  নেয়। উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ গায়ের জোরে উক্ত অবশিষ্ট তিন কড়া জায়গা জবর দখল করে। বাদী স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৩/০৭/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ বড়ঊঠান

আর,এস খতিয়ান নং১১৭২ দাগ নং ২৯৮০/৩৭৬৬

বি,এস খতিয়ান নং২১৯ দাগ নং ২২৯৯

সর্বমোট ১০শতক

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

        বিষয়ঃ সুষ্ঠহভাবে বিচারের জন্য আবেদন।

       বাদীঃ জনাবা সাহেদা বেগম স্বামীঃ মৃত মোঃ আলী

      সাং শাহমীরপুর,ওয়ার্ড নংঃ০৬ ,থানাঃ কর্নফুলী, জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                              বনাম

      বিবাদীঃ ১.জনাব মোজাহেরম্নল হক পিতাঃ মৃত আলী আহমদ

                ২. জনাব আজব খাতুন পিতাঃ ঐ

         সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ০৬,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও অবলা পর্দানশীল মহিলা হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২) উপরে বর্ণিত বিবাদী যথাক্রমে বাদীর ভাসুর ও ননদ হয়। বাদীর স্বামী ক্যান্সার রোগে আক্রামত্ম হইলে তাহার চিকিৎসার জন্য তাহার স্বামীর খরিদা একগন্ডা জায়গা বিক্রি করে।  উক্ত জমি বিক্রির টাকা দিয়া তাহার স্বামীর চিকিৎসা করায় এবং চিকিৎসারত অবস্থায় তাহার স্বামী মৃত্যু বরন করেন। অবশিষ্ট টাকা বাদী স্বামী গুন্নু মহাজনের নিকট জমা রাখে এবং তাহার মৃত্যুর পর উক্ত টাকা বাদীকে ফেরত দানের বলে যান।বাদীর নিজের কোন সমত্মান না থাকায় বাদীর স্বামীর পরামর্শে বাদী একটি সাতদিনের শিশুকে দত্তক  নেয়। উক্ত শিশুর বর্তমান বয়স নয় বছর।উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ বাদীর স্বামীর সম্পত্তি ও টাকা আত্মসাৎ করার জন্য নানাভাবে পায়ঁতারা করছে এবং বাদীকে নানা ভাবে হয়রানী করছে। বাদী তাহার মাসুম শিশুর ভবিষ্যতের কথা ভাবিয়া স্থানীয়ভাবে উক্ত বিষয়ে নিষ্পত্তির জন্য চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।উক্ত বিষয়ে নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যমত্ম তাহার স্বামীর ওয়ারিশ সনদ প্রদান  না করার জন্য বাদী সবিনয় অনুরোধ জানান।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------২২/০৬/২০১২ইংরেজী

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

বিষয়ঃ মৌরশী  ও খরিদা সম্পত্তি জবর দখলকারীদের বিরম্নদ্ধে প্রতিকার প্রসঙ্গে।

বাদীঃ জনাব মোঃ ইউছুপ পিতাঃ মৃত জরি আহমদ সাং শাহমীরপুর(বড় বাড়ী) ,ওযার্ড নংঃ০৪,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                                      বনাম

বিবাদীঃ ১.জনাব আবু ছিদ্দিক পিতাঃ মৃত আমির হোসেন

         ২. জনাব আবদুর রহিম  পিতাঃ মৃত মোহাম্মদ মিয়া

         সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ০৪,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

1)     বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদীর মৌরশী ও খরিদা মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জায়গার  বাদী সর্বমোট উনিশ শতক সম্পত্তির মালিক হয়। বর্তমানে উক্ত তপশীলের জায়গার পনের শতক জায়গা বাদীর  দখলে স্থিত আছে। উপরে বর্ণিত বিবাদী সম্পূর্ণ গায়ের জোরে উক্ত অবশিষ্ট চার শতক জায়গা জবর দখল করে। বাদী স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৩/০৭/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃশাহমীলপুর

আর,এস খতিয়ান নং ১০১০দাগ নং ৫১১৪

বি,এস খতিয়ান নং২৬৩১  বি,এস দাগ নং ৭৭৩৩

সর্বমোট ১৯ শতক বা ৯ গন্ডা এক কড়া এক দমত্ম

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

বিষয়ঃ মৌরশী সম্পত্তি জবর দখলকারীদের বিরম্নদ্ধে প্রতিকার প্রসঙ্গে।

             বাদীঃ জনাব শাহ জামাল পিতাঃ মৃত শামসুল আলম, সাং দঃশাহমীরপুর(লিচু তলা) ,ওযার্ড

              নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৮২৩-৬৫৪৩৯০

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব জামাল আহমদ পিতাঃ মৃত নজির আহমদ

         সাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদীর মৌরশী মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়।  উক্ত তপশীলের জায়গার  বাদীগং দশ শতক সম্পত্তির মালিক হয়। বর্তমানে উক্ত তপশীলের জায়গার ৮ শতক জায়গা বাদীগং এর দখলে স্থিত আছে। উপরে বর্ণিত বিবাদী সম্পূর্ণ গায়ের জোরে উক্ত অবশিষ্ট দুই শতক জায়গা জবর দখল করে। উক্ত বিষয়ে বাদী স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৩/০৭/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃশাহমীলপুর

আর,এস খতিয়ান নং২৬৯১দাগ নং ১২২২৪

বি,এস খতিয়ান নং৩০৯১  বি,এস দাগ নং ১৬৫৮১

সর্বমোট ২৩০ শতক বা ১০ গন্ডা

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব সাবের আহমদ পিতাঃ মৃত আবুল হোসেন, সাং শাহমীরপুর(নুরম্ন সারাং বাড়ী)    

            ওয়ার্ড  নংঃ০৬,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৮১৯-৬৪৯২০৬

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব নুরম্নল আলম পিতাঃ মৃত কালা মিয়া

                    ২.জনাব আবদুল মাবুদ পিতাঃ মৃত আবদুস সোবহান

         সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওয়ার্ড নংঃ ০৪,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, প্রতারক ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) বিগত ২২/০৪/২০১২ইংরেজী তারিখে উপরে বর্ণিত বাদীর ছোট বোন ইয়াছমিন আকতারের সহিত ২নং বিবাদীর ইসলামী শরা-শরীয়ত ও কাবিননামা মূলে বিবাহ সম্পন্ন হয়। উপরে বর্ণিত ১নং বিবাদী ২নং বিবাদীর আপন ভাই পরিচয় দিয়া অভিভাবক সাজিয়া কনের পÿÿর অভিভাবকের সহিত বিবাহের কথাবার্তা চুড়ামত্ম করে। উক্ত ১নং বিবাদীর জানায় বর সদ্য বিদেশ হইতে আসিয়াছে এবং বরের  পিতামাতাসহ শাহমীরপুর ৪নং ওয়ার্ড়ে পাকা ঘর নির্মাণ করিয়া স্থায়ীভাবে বসবাস করে।বাদী ও বাদীর পরিবার তাহার কথা সরল মনে বিশ্বাস করিয়া বর পÿÿর দাবী পরিশোধ করিয়া গত ২২/০৪/২০১২ ইংরেজী তারিখে বিবাহ সম্পন্ন হয়।বিবাহের ২দিন পর ভোর ৫টায় ২নং বিবাদীর মা স্বণাংলকার চুরি করিয়া নিয়া যাবার সময় বাদীর বোন ইয়াছমিন আকতার দেখিতে পাইয়া জিজ্ঞাসা করিলে  তিনি তাহাকে শারীরিক ভাবে নির্যাতন করে।পরবর্তীতে ২নং বিবাদী ও তাহার কথিত মা মিলিয়া বাদীর বোন ইয়াছমিন আকতারকে মারধর করিয়া হুমকি প্রদান করে বলে একথা  কাউকে বলিলে গলা টিপে হত্যা করবে। ৫দিন পর উক্ত বিবাদীর বোন ইয়াছমিন আকতার বাপের বাড়ীতে নাইর আসে।পরবর্তীতে ২নং বিবাদী তাহাকে আনিতে গেলে উক্ত ঘটনার কথা তাহাকে বলিলে তিনি নানা কটুক্তিমূলক বলিতে থাকে এবং নানা প্রকার হুমকি প্রদান করিয়া  চলিয়া আসে।দুই মাস অতিবাহিত হইয়া গেলেও অদ্যাবধি বিবাদীপÿ হইতে কোন যোগাযোগ করে নাই। উক্ত বিষয়ে বাদী স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৯/০৭/২০১২ইংরেজী

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

        বিষয়ঃ মৌরশী  সম্পত্তি জবর দখলকারীদের বিরম্নদ্ধে প্রতিকার প্রসঙ্গে। ০১৮২৯-৯৪০৪৭০

          বাদীঃ ১.জনাব মোঃ ইউনুচ  পিতাঃ মৃত কবির আহমদ

                 ২.জনাব মোঃ হোসেন পিতাঃ ঐ

                  ৩.জনাব মোঃ হাসান পিতাঃ ঐ

       সর্বসাং বড়ঊঠান ,ওযার্ড নংঃ০৯,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                                      বনাম

    বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ ইউছুপ  পিতাঃ মৃত কবির আহমদ    

              ২. জনাব মোঃ এয়াকুব  পিতাঃ ঐ

               ৩. জনাব মোঃ ইদ্রিছ পিতাঃ ঐ

    সর্বসাং বড়উঠান (খলিল মিস্ত্রির বাড়ী),ওয়ার্ড নংঃ০৯ ,থানাঃ পটিয়া, জেলাঃ চট্টগ্রাম।

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

5)    বাদীগণ সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

6)    নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদীগণের মৌরশী মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ বাদীর সৎভাই হয়। বাদীগণের পিতার মৃত্যুর পর উক্ত তপশীলের জায়গা পরিমাপ না করিয়া । উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ গায়ের জোরে দখল করে। বাদী পরিমাপ পরিমাপ করিয়া তাহার প্রাপ্য অংশ বুঝিয়া দেবার কথা বলিলে উক্ত বিবাদীগণ নানা কটুক্তিমূলক কথা বলিতে থাকে এবং বাদীগণকে মারার জন্য চেষ্টা করে। বাদী স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৯/০৭/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ বড়ঊঠান

বি,এস খতিয়ান নং ৫০০/৬৭৫দাগ নং ২৮৫৬/২৮৫৮/২৮৬০/২৮৬১/২৮৪৪/২৮৫৬

সর্বমোট ৪০শতক বা ২গন্ডা

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাবা ডেইজি আকতার স্বামীঃ দীন মোহাম্মদ, সাং বড়উঠান(গুরম্নন ফকিরের বাড়ী)    

            ওয়ার্ড  নংঃ০৮,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৮১৯-৬৩৬৬৮৭

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব এয়ার মোহাম্মদ পিতাঃ মৃত রফিক আহমদ

     সাং বড়উঠান(গুরম্নন ফকিরের বাড়ী)   ওয়ার্ড  নংঃ০৮,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

জনাব,

     সবিনয় নিবেদন এই যে, বাদী নিমণবর্ণিত  মতে আবেদন করে।

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় ও অবলা মহিলা হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম ঝগড়াটে, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) উপরে বর্ণিত বিবাদী বাদীর আপন দেবর হয় । বিগত ০৬/০৭/২০১২ ইংরেজী তারিখে স্থানীয় মৌলানা মহিবুলস্নাহ শাহ ঔরশ  উপলÿÿ্য বাদী ও বিবাদীর পারিবারিকভাবে  ফাতেহার আয়োজন করে। সেই উপলÿÿ্য রান্নাবান্না করার জন্য বাদীকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। বাদী রান্না বান্নার করার জন্য পাকঘরে গিয়া চুলায় আগুন জ্বালায় । সেই সময় উপরে বর্ণিত বিবাদী পাকঘরে গিয়া বাদীকে তাড়াতাড়ী করিয়া রান্না করার জন্য বলিলে বাদী তাহার সাত মাসের শিশুকে কাউকে দেওয়ার জন্য উক্ত বিবাদীকে অনুরোধ করে। এ কথা উক্ত বিবাদী উত্তেজিত হইয়া বাদীকে গালিগালাজ করিতে থাকে। এক পর্যায়ে বাদীকে এলোপাতাড়ী কিল,ঘষি,লাথি মারিয়া রক্তাক্ত জখম করে।পরবর্তীতে বাদীর স্বামী আসিয়া বাদীকে ডাক্তারের কাছে নিয়া যায়। ওষুদ পত্র নিয়া বাদীকে তাহার স্বামী বাদীর বাপের বাড়ীতে পাঠিয়া দেয়। উক্ত বিবাদী প্রায় সময় বাদীকে শারীরিক ও  মানসিকভাবে নির্যাতন করিয়া আসিতেছে।বাদী মান সন্মানের কথা ভাবিয়া সকল প্রকার নির্যাতন সহ্য করিয়া আসিতেছে। নির্যাতনের মাত্রা দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৯/০৭/২০১২ইংরেজী

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাবা পাকি বেগম পিতাঃ মৃত মোঃ নুরম্নন্নবী, সাং শাহমীরপুর(মৌলানা নূরম্নল হকের বাড়ী)    

            ওয়ার্ড  নংঃ০৬,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ আমিন পিতাঃ মৃত জেবরমুলস্নুক

                    ২.জনাব আনোয়ারা বেগম পিতাঃ ঐ

                    ৩.জনাবা নুর বানু পিতাঃ ঐ

                    ৪.জনাবা কহিনুর আকতার পিতাঃ ঐ

                    ৫.জনাবা সখিনা খাতুন স্বামীঃঐ

         সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওয়ার্ড নংঃ ০৬,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় ও অবলা মহিলা লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) বিগত ২৪/১২/২০১২ইংরেজী তারিখে উপরে বর্ণিত বাদীর সহিত বিবাদীগণের ভাই মোঃ নুরম্নন্নবীর ইসলামী শরা-শরীয়ত ও কাবিননামা মূলে বিবাহ সম্পন্ন হয়। বিবাহের পর বাদীকে নিয়া তাহার স্বামী মোঃ নুরম্নন্নবী ফকিরনীরহাটের পশ্চিমে জনৈক ইব্রাহীমের ভাড়া বাসায় বসবাস করে।। জানুযারী মাসে বাদীর স্বামী যÿারোগে আক্রামত্ম হয়।বাদী তাহার ডাক্তারের নিয়া স্বামীর চিকিৎসা করিতে থাকে। চিকিৎসারত অবস্থায় উপরে বর্নিত বিবাদীগণ বাদীর বাসায় গিয়া জোরপূর্বক বাদীর স্বামীকে নিয়া যায়। সেখানে থাকা অবস্থায় বাদীর স্বামী  ০৬/০৭/২০১২ ইংরেজী তারিখে মৃত্যু বরন করে। বাদী বার বার তাহার স্বামীকে দেখার জন্য চেষ্টা করিলে উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ তাহাকে নাজেহাল করিয়া তাড়িয়া দেয়।বর্তমানে উক্ত বিবাদীগণ বাদীকে তাহার প্রাপ্য অংশ সম্পত্তি ঘেকে বঞ্চিত করার জন্য নানাভাবে পাঁয়তারা করিতেছে। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৯/০৭/২০১২ইংরেজী

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

বিষয়ঃ দীর্ঘদিনের পুরানো চলাচলের রাসত্মার যাতায়াতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টিকারীদের বিরম্নদ্ধে প্রতিকার প্রসঙ্গে।

             বাদীঃ জনাব মোঃ ইসমাইল পিতাঃ মৃত আলী আহমদ, সাং দঃশাহমীরপুর(সওদাগর পাড়া) ,ওয়ার্ড় নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৯২৪-২৯১৯৭৭

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ হারম্নন পিতাঃ মৃত হাছি মিয়া

         সাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদীর ও বাদীর পিতামাতার  খরিদা মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়।  উক্ত তপশীলের জায়গায় চলাচলের জন্য প্রায় ১০০ বছরের পুরানো  একটি রাসত্মা রয়েছে। উক্ত রাসত্মাটি আমান খাতুন বাপের বাড়ীর রাসত্মা নামে পরিচিত।উক্ত বাড়ীর প্রায় ৩০ পরিবার উক্ত রাসত্মা দিয়া চলাচল করে। বড়পরিতাপের বিষয় যে, উপরে বিবাদী উক্ত চলাচল করিতে বাধা প্রদান করে। অতি বর্ষনে ফলে পানি জমে উক্ত রাসত্মাটি চলাচলের অযোগ্য হইয়া পড়িলে বাদী রাসত্মাটি সংস্কার করিতে গেলে উপরে বর্ণিত বিবাদী বাধা প্রদান করে এবং নানা কটুক্তি কথাবার্তা বলিয়া বাদীকে নাজেহাল করে। উক্ত রাসত্মা দিয়া চলাচল না করার জন্য হুমকি প্রদান করে। উক্ত বিষয়ে বাদী স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৯/০৭/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃশাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং ৩১৪৪/৩০৯১ দাগ নং ১২৮৩১/১২৮৩২/১২৮৩০

বি,এস খতিয়ান নং৬০০  বি,এস দাগ নং ১৬৮৪৯

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

        বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবেদন।

    বাদীঃ মি. বাবুল দাশ পিতাঃ মৃত পল দাশ সাং দৌলতপুর ,ওর্য়াড় নংঃ০১,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ  

     চট্টগ্রাম।

                                              বনাম

    বিবাদীঃ১.মি. তাপস দাশ  পিতাঃ হারম্নন যোয়াকিম দাশ        

            ২. মি.রম্নবেল কার্লটন পিতাঃ রবার্ট কার্লটন

         সর্বসাংদৌলতপুর ,ওয়ার্ড নংঃ০১,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

7)     বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

8)    উপরে বর্নিত বাদীর মরিয়ম আশ্রম এলাকায় শাকসব্জির বাগান ও ফলের বাগান রয়েছে। অরেক পরিশ্রম করিয়া উক্ত বাগানে শাস সবজি ও ফলমূল উৎপন্ন করে।বিগত ০৬/০৭/২০১২ইংরেজী রাত ১০ঘটিকায় উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ পূর্বপরিকল্পিতভাবে বাদী কতৃক চাষকৃত সবজির বাগান নষ্ট করিয়া ফেলে এবং ফলবতী গাছ উপড়ে ফেলে।এর ফলে বাদীর প্রায় ২০,০০০.০০ টাকার ÿতি সাধন করে। স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৯/০৭/২০১২ইংরেজী

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবেদন।

             বাদীঃ শামতারা বালা দাশ  পিতাঃ মৃত মহিন্দ্র জলদাশ, স্বামীঃ সিদম জলদাশ,সাং দঃশাহমীরপুর(সনাতন পাড়া) ,ওয়ার্ড় নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

                                                    বনাম

          বিবাদীঃ ১.টুনু বালা দাশ স্বামীঃ মৃত হরিবন্ধু দাশ

                    ২.হরিলাল দাশ পিতাঃ ঐ

         সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় মহিলা হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) উপরে বর্ণিত ২নং বিবাদী বাদীর সৎভাই হয়। প্রায় ৫০ বছর ধরে বাদী ও বিবাদীগণ তাহাদের মৌরশী ভিটায় বসবাস করিয়া আসিতেছে।বাদী তাহারা ছেলে মেয়ে ও ভাই নিয়া উক্ত ভিটায় অতি কষ্টে দিনাতিপাত করিতেছে। বাদী অত্যমত্ম গরীব ও নিরীহ হওয়ায় উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ গায়ের জোরে উক্ত ভিটা হইতে উছে্ছদ করার জন্য নানা পাঁয়তারা  করছে এবং বাদী ও বাদীর পরিবারের উপর নানা প্রকার মানসিকভাবে নির্যাতন করিয়া আসিতেছে।উক্ত বিবাদীগণ বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে। উক্ত বিষয়ে বাদী স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৩/০৭/২০১২ইংরেজী

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

        বিষয়ঃ মৌরশী  সম্পত্তি জবর দখলকারীদের বিরম্নদ্ধে প্রতিকার প্রসঙ্গে। ০১৮২৯-৯৪০৪৭০

          বাদীঃ ১.জনাব মোঃ ইউছুপ  পিতাঃ মৃত নজির আহমদ

        সাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ ০৫,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

                                             বনাম

    বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ এজাহার মিয়া পিতাঃ মৃত গোলাম হোসেন   

              ২. জনাব মোঃ আবদুল মন্নান  পিতাঃ আবদুল গণি

    সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ ০৫,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

১)বাদীগণ সহজ-সরল, নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদী পিতার খরিদা মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জয়গার প্রায় ১০ গন্ডা বাদীর দখলে স্থিত আছে।বাদীগণের পিতার মৃত্যুর পর উক্ত তপশীলের জায়গা  উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ গায়ের জোরে দখল করে। বাদী পরিমাপ পরিমাপ করিয়া তাহার প্রাপ্য অংশ বুঝিয়া দেবার কথা বলিলে উক্ত বিবাদীগণ নানা কটুক্তিমূলক কথা বলিতে থাকে এবং বাদীগণকে মারার জন্য চেষ্টা করে। বাদী স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------১১/০৭/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ শাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং ২৬৬৮ /২৬৭৬ /১২০০দাগ নং ৬৩৭৭/৬৩৮০/৬৩৮৬/৬৩৯৩/৬৩৯২/৬৩৯০/ ২৭০৮/২৭০৯/২৭১০/২৭১১/২৭১৩/২৭১৬

সর্বমোট ৫০শতক বা ২৫গন্ডা

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

        বিষয়ঃ মৌরশী  সম্পত্তি জবর দখলকারীদের বিরম্নদ্ধে প্রতিকার প্রসঙ্গে। ০১৮২৯-৯৪০৪৭০

          বাদীঃ ১.জনাব মোঃ ইউছুপ  পিতাঃ মৃত নজির আহমদ

        সাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ ০৫,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

                                             বনাম

    বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ এজাহার মিয়া পিতাঃ মৃত গোলাম হোসেন   

              ২. জনাব মোঃ আবদুল মন্নান  পিতাঃ আবদুল গণি

              ৩.জনাব সাহাবুদ্দীন পিতাঃ মৃত আবুল কাশেম

              ৪.জনাব মোঃ নুরম্নল আবছার পিতাঃ মৃত মোঃ হোসেন

              ৫.জনাব আবদুর রহিম পিতাঃ আবদুল হক

             ৬.জনাব আবদুল হামিদ পিতাঃ মৃত মোঃ শরীফ

    সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ ০৫,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

১)বাদীগণ সহজ-সরল, নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদী পিতার খরিদা মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জয়গার প্রায় ১০ গন্ডা বাদীর দখলে স্থিত আছে।বাদীগণের পিতার মৃত্যুর পর উক্ত তপশীলের জায়গা  উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ গায়ের জোরে দখল করে। বাদী পরিমাপ পরিমাপ করিয়া তাহার প্রাপ্য অংশ বুঝিয়া দেবার কথা বলিলে উক্ত বিবাদীগণ নানা কটুক্তিমূলক কথা বলিতে থাকে এবং বাদীগণকে মারার জন্য চেষ্টা করে। বাদী স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------১১/০৭/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ শাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং ২৬৬৮ /২৬৭৬ /১২০০দাগ নং ৬৩৭৭/৬৩৮০/৬৩৮৬/৬৩৯৩/৬৩৯২/৬৩৯০/ ২৭০৮/২৭০৯/২৭১০/২৭১১/২৭১৩/২৭১৬

সর্বমোট ৫০শতক বা ২৫গন্ডা

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব মোঃ ইউছুপ পিতাঃ মৃত আবুল কালাম, সাংদঃ শাহমীরপুর(জাগির পাড়া )    

            ওয়ার্ড  নংঃ০৬,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৬৮০-৫৮৫৫৩৪

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাবা নারগিছ আকতার পিতাঃ মৃত কোরবান আলী

                 সাং বড়ঊঠান (গুরম্নন ফকিরের বাড়ী,ওয়ার্ড নংঃ ০৮,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম ঝগড়াটে, লোভী ও বেপরোয়া প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) বিগত ১৯/০৫/২০০৭ ইংরেজী তারিখে উপরে বর্ণিত বাদীর সহিত বিবাদীর ইসলামী শরা-শরীয়ত ও কাবিননামা মূলে বিবাহ সম্পন্ন হয়। বিবাহের পর  বাদী ও বিবাদী সুখে শামিত্মতে বসবাস করিতে থাকে। যাহার প্রেÿÿতে বাদীর ঔরশে ও বিবাদীর গর্ভে  একপুত্র এক কন্যা সমত্মান জন্ম লাভ করে। কিন্তু পরবর্তীতে উক্ত বিবাদীর আসল চেহারা ধরা পড়ে। বাদী ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের উপর নানা প্রকার মানসিক নির্যাতন করিয়া আসিতেছে। উক্ত বিবাদী সংসারের প্রতি উদাসীন থাকে।সাংসারিক কাজ কর্ম করিতে উক্ত বিবাদী অনীহা প্রকাশ করে।বাদী মান সন্মান ও  সমত্মানদের ভবিষতের কথা ভাবিয়া বাদীর সমসত্ম অপরাধ সহ্য করিয়া আসিতেছে। কিন্তু দিন দিন উক্ত বিবাদীর অপরাধের মাত্রা বাড়িতেছে। যাহার প্রেÿÿতে বাদী শাসন করিতে গেলে উক্ত বিবাদী বাদীকে নাজেহাল করে। এমনি কি ঘুমের মধ্যে বাদীর গলা চেপে মেরে ফেলার চেষ্টা করে। বিগত ০৯/০৭/২০১২ ইংরেজী সংসারের কাজকর্ম নিয়া বাদী সহিত বিবাদীর ঝগড়া হইলে বিবাদী পাশে ঘরে গিয়া অবস্থান করে। সেখান হইতে না আসায় বাদীর বিবাদীর ভাইদের খবর পাঠায়। তাহারা আসিয়া ইউপি সদস্য জনাব মোঃ আবুল কাশেম এর মাধ্যমে বিবাদীকে তাহার বাপের বাড়ীতে নিয়া যায়। বাদী স্থানীয় ভাবে উক্ত বিষয়ে নি্ষ্পত্তির  চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।

 

                  অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে   

               তলব করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------১৬/০৭/২০১২ইংরেজী

 

   

           

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ মিসেস মিশেল গোমেজ স্বামীঃ আলেকজান্ডার সমীরণ গোমেজ,

সাংঃ দৌলতপুর(মরিয়ম আশ্রম দেয়াং)  ওয়ার্ড  নংঃ০১,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৭৪৯-৪৫৩১৮৬ 

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.মি. ডেসবিন ডি কসত্মা পিতাঃ বিলি ডি কসত্মা

সাংঃদৌলতপুর(মরিয়ম আশ্রম দেয়াং)  ওয়ার্ড  নংঃ০১,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                

 

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় অবলা মহিলা হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম নিষ্ঠুর,  ও সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) বিগত ১২/০৮/২০১২ ইংরেজী তারিখে রাত ১০.০০ ঘটিকায় উপরে বর্ণিত বিবাদী মাতাল অবস্থায় বাদীকে অশস্নীল ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে। সেই সময় বাদী গেইটে তালা দিয়া ঘরে ভেতর ছিল। উক্ত বিবাদী বাদীর ঘরে প্রবেশের জন্য উক্ত গেইট এবং দোকানের গ্রিল  ভাঙ্গিয়া ফেলে। এমনি কি বাদীর ঘরের চাল খুলিয়া ঘরের ভেতরে প্রবেশের চেষ্টা করে। শোরগোল শুনিয়া এলাকার লোকজন এগিয়া আসিলে উক্ত বিবাদী পালিয়া যায়। যাবার সময়  উক্ত বিবাদী বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে। উক্ত বিবাদী আরো কয়েকবার বাদীর ঘরে প্রবেশের চেষ্ঠা করে।বাদী স্থানীয় ভাবে উক্ত বিষয়ে নি্ষ্পত্তির  চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

 

                  অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে   

               তলব করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------১৬/০৮/২০১২ইংরেজী

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব মোঃ কামাল উদ্দীন পিতাঃ মৃত আবদুর গফুর

      সাংঃ শাহমীরপুর ওয়ার্ড  নংঃ০৪,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৮১৫-৩৩১৩৩২ 

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব আবদুল করিম(খোকন) পিতাঃ বদিউল আলম

      সাংঃ বড়উঠান (মোহন চৌধুরী বাড়ী) ওয়ার্ড  নংঃ০৮,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                

 

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী  ও প্রতারক প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২)উপরে বর্ণিত বিবাদী বাদীর দোকানের কর্মচারী হয়। তাই দোকানের চাবী উক্ত বিবাদীর নিকট থাকত। বাদীর সহিত বিবাদীর দোকানের কাজ নিয়া কথা কাটাকাটি হয়। বিগত ১৮/০৮/২০১২ ইংরেজী তারিখে উক্ত বিবাদী দোকান খুলিয়া  দোকানের মোটরসহ অন্যান্য জিনিসপত্র নিয়া যাবার চেষ্টা করে কিন্তু দোকানের পাশের ঘরের  থাকা বাদীর ভাগিনীর স্বামী দেখে ফেলায়  বিবাদী উক্ত   জিনিসপত্র ফেলিয়া দোকানের রÿÿত ১৬,৩০০.০০ টাকা নিয়া যায়। বাদী খবর পাইয়া দোকানে যায় এবং উক্ত বিবাদীর সহিত যোগাযোগের চেষ্টা করে। বিবাদীর দেখা না পাইয়া বাদী বিবাদীর পিতাকে ঘটনার কথা বলিলে বিবাদীর পিতা তাহার পুত্রকে আনিয়া উক্ত বিষয়ের নিষ্পত্তির করার জন্য বাদীকে আশ্বাস দেন। কিন্তু অদ্যাবধি বাদীর পিতা কোন ব্যবস্থা না করায় বাদী স্থানীয় মেম্বার সাহেবকে অবহিত করেন। মেম্বার সাহেব অত্র গ্রাম আদালতের মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তি করার পরামর্শ দেন। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া উক্ত ঘটনার  সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।         ইতি-------------------------------------২৫/০৮/২০১২ইংরেজী

 

 

              

   

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব মোঃ মনজুর পিতাঃ মৃত কবির আহমদ

      সাংঃ বড়ঊঠান(কুলাল পাড়া) ওয়ার্ড  নংঃ০৮,থানাঃ পটিয়া,,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৮১৩-৮০১৭২৫

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ ইদ্রিছ (লেদু) পিতাঃ

      সাংঃ শাহমীরপুর(নাছির মেম্বারের বাড়ী)ওয়ার্ড  নংঃ০৯,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                

 

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী  ও প্রতারক প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২)উপরে বর্ণিত বিবাদী বাদীর দূরসম্পর্কের আত্মীয় হয়। উপরে বর্ণিত বিবাদীর ভাগিনা আইয়ুব আলী বিদেশ যাবার জন্য বাদীর খালাত ভাইয়ের সহিত বিবাদীর কথাবার্তা চুড়ামত্ম হয়। ভিসা দেশে পাঠাইলে ভিসার টাকা সম্পূর্ণ জোগাড় করিতে না পারায় উক্ত বিবাদী বাদীর শরনাপন্ন হয়। বিবাদী নিমণবর্ণিত ব্যক্তিগণকে নিয়া বাদীকে ভিসার ব্যাপারে ৫০,০০০.০০(পঞ্চাশ হাজার) টাকা হওলাত দেবার জন্য অনুরোধ করে। বাদী রাজি না হওয়ায় উক্ত বিবাদী জমি বিক্রি করিয়া টাকা পরিশোধ করার  জন্য  অঙ্গীকার করে এবং  স্ট্যাম্প  প্রদান করার কথা বলে। নিমণবর্ণিত ব্যক্তিগণও বাদীকে অনুরোধ করিলে বাদী মানবিক দিক বিবেচনাপূর্বক স্ট্যাম্প গ্রহণ করিয়া ৫০,০০০.০০ টাকা বাদীর বরাবরে প্রদান করে। দুই মাসের মধ্যে উক্ত টাকা পরিশোধ করার কথা থাকলেও  প্রায় ১ বছর অতিবাহিত হয় কিন্তু অদ্যাবধি কোন টাকা পরিশোধ করে নাই। বাদী বার বার টাকার জন্য তাগাদা দিলে উক্ত বিবাদী নানা তাল বাহানা করিতে থাকে। এক পর্য়ায়ে উক্ত বিবাদী নানা কটুক্তিমূলক কথা বার্তা বলিতে থাকে এবং বাদীকে নাজেহাল করে। বাদী স্থানীয় মেম্বার সাহেব অবহিত করিলে তিনি অত্র গ্রাম আদালতের মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তি করার পরামর্শ দেন। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া উক্ত ঘটনার  সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।         ইতি-------------------------------------২৫/০৮/২০১২ইংরেজী

সাÿীগণের নামঃ

১.মোঃ আইয়ুব ২.আবদুল মালেক ৩.হাফেজ আহমদ ৪ .মোঃ লিয়াকত সর্বসাং শাহমীরপুর

  

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ১.জনাব খোরশেদুল আলম গং পিতাঃ মৃত দেলোয়ার হোসেন

          ২.জনাব নুরম্নল আজিম গং পিতাঃ মৃত জাহেদ হোসেন, সর্বসাং শাহমীরপুর(টেন্ডল বাড়ী)    

            ওয়ার্ড  নংঃ০৬,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৮৩০-৫৬০০৪৬

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব জাহাঙ্গীর আলম গং পিতাঃ মৃত আবুল হাশেম

         সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওয়ার্ড নংঃ ০৬,(আবুল হাশেমের বাড়ী)থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১)বাদীগং  সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদীগং এর মৌরশী মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জায়গার  বাদীগং এর দখলে স্থিত আছে। কিন্তু বড় পরিতাপের বিষয় যে,  উক্ত তপশীলের জায়গা  উপরে বর্ণিত বিবাদীগং সম্পূর্ণ গায়ের জোরে দখল করার চেষ্টা করছে। উক্ত তপশীলের জায়গায় তাহাদের ময়লা আবর্জনা ফেলে এলাকার পরিবেশ নষ্ট করছে। উক্ত বিবাদীগং যে কোন সময় উক্ত তপশীলের জায়গা জোর পূর্বক দখল করার জন্য নানা প্রকার হুমকি প্রদানসহ  নানা কটুক্তিমূলক কথা বলিতে থাকে । বাদী গং স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদীগং নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------২৮/০৮/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ শাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং ৩৮৬/১,৩৮২ দাগ নং৯৮৫/৯৮৭/৯৮৯/৯৯৪

বি,এস খতিয়ান নং ৯৩৩/৯৪৭ দাগনং ২০৯৫/২১০১/২১০৬/২০৯৪/২১০৭

 সর্বমোট ১০৪ শতক বা ৫২গন্ডা

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ১.জনাব মোঃ শফিউল আলম  পিতাঃ মৃত আলী আহমদ সাং শাহমীরপুর

            ওয়ার্ড  নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১১৯৫-০৩১৭৫০

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব জহুরম্নল  আলম গং পিতাঃ মৃত আলী আহমদ

         সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওয়ার্ড নংঃ ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১)বাদীগং  সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদীর মৌরশী মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জায়গার  বাদীগং এর দখলে স্থিত আছে। উক্ত তপশীলের জায়গায়  চলাচলের জন্য দীর্ঘদিনের রয়েছে। কিন্তু বড় পরিতাপের বিষয় যে,  উপরে বর্ণিত বিবাদী  উক্ত রাসত্মার উপর দিয়া চলাচলে  এবং  উক্ত তপশীলের জায়গায় ঘর নির্মাণ করিতে গেলে উক্ত বিবাদী  বাধা প্রদান পূর্বক বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদানসহ  নানা কটুক্তিমূলক কথা বলিতে থাকে । বাদী  স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদীগং নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------২৮/০৮/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ শাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং ২৬২৯ দাগ নং১১৪২৫

বি,এস খতিয়ান নং ২৯ দাগনং১৫৬৫০

 সর্বমোট ৬৪ শতক বা ৩২ গন্ডা

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ১.জনাব হরিলাল দাশ  পিতাঃ মৃত হরিবন্ধু দাশ সাং শাহমীরপুর

            ওয়ার্ড  নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৮২০-০৩৮৩০১

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১. শামতারা দাশ  স্বামীঃ শ্রীধাম দাশ

                   ২. বাবু সাগর দাশ(বালী) পিতাঃ ঐ

                   ৩. রেলী দাশ স্বামীঃ সাগর দাশ(বালী)

                   ৪. নিপা দাশ পিতাঃ শ্রীধাম দাশ

                  ৫.বাবু জহর লাল দাশ পিতাঃ মৃত মহেন্দ্র দাশ

         সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওয়ার্ড নংঃ ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১)বাদী  সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদীর মৌরশী মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জায়গার  আর,এস রেক©র্ড মালিক হয় কালিতারা পাতরানী। তাহার মৃত্যুর পর তাহার একমাত্র পুত্র হরিবন্ধু জলদাস উক্ত তপশীলের সম্পত্তির মালিক হয়। উক্ত হরিবন্ধু জলদাস পরলোক গমন করিলে তাহার একমাত্র পুত্র হরিলাল দাশ উক্ত তপশীলের জায়গার মালিক হয়। কিন্তু  উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ গায়ের জোরে তপশীলের জায়গা জবর দখল করে। বাদী  পরিমাপ করিয়া  তাহার প্রাপ্য নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা  বুঝিয়া দেবার জন্য বলিলে উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ অশস্নীল ভাষায়  গালিগালাজ করিতে থাকে এবং নানা  প্রকার হুমকি প্রদান করে।বাদী  স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৩/০৯/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ শাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং ১৩৬৮ দাগ নং১১০৩১৩

বি,এস খতিয়ান নং ২৮ দাগনং১৫০০৮

 সর্বমোট  ২কড়া ১কন্ট ৩দমত্ম বা দেড় শতক

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাবা রিজিয়া বেগম স্বামীঃ মৃত শাহ আলম

      সাংঃ বড়ঊঠান(ডাক পাড়া) ওয়ার্ড  নংঃ০৯,থানাঃ পটিয়া,,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৮১৩-২১৩৬০৪

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ জাগির হোসেন পিতাঃ মৃত রফিক আহমদ সাদা

                   ২.জনাব মোঃ মিজান পিতাঃ জাগির হোসেন

                   ৩.জনাবা হামিদা বেগম স্বামীঃ ঐ

                   ৪.জনাবা নিশাদ পিতাঃ ঐ

            সাংঃ বড়ঊঠান(ডাক পাড়া) ওয়ার্ড  নংঃ০৯,থানাঃ পটিয়া,,জেলাঃ চট্টগ্রাম।                    

 

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় ও অবলা মহিলা  হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম বেপরোয়া, নির্লজ্জ,ঝগড়াটে ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২)উপরে বর্ণিত বিবাদী বাদীর আপন ভাই ও ভাইপো ভাইঝি হয়। উপরে বর্ণিত ২-৪ নং বিবাদীগণ আরো লোকজন নিয়া ৩০/০৮/২০১২ ইংরেজী রোজ  বৃহস্পতিবার রাত্রে মেহেদী অনুষ্ঠান উপলÿÿ্য বাদীর ঘরের দিকে মুখ করিয়া মাত্রাতিরিক্ত আওয়াজে সাউন্ড বক্স বাজাচ্ছিল। বাদী অসুস্থ হওয়ায় সাউন্ড বক্সের আওয়াজ কমিয়ে বা অন্য দিকে মুখ করিয়া বাজানোর জন্য উক্ত বিবাদীগণকে অনুরোধ করে। কিন্তু বিবাদীগণ আরো জোরে এবং বেশি করিয়া সাউন্ড বক্স আনিয়া বাজাবে বলিয়া বাদীকে হুমকি  প্রদান করিয়া বাদীকে নাজেহাল করার চেষ্টা করে। বাদী মান সন্মানের কথা ভাবিয়া ঘরে প্রবেশ করে দরজা বন্ধ করিয়া রাখে। পরের দিন সকাল ১০.০০টায় উপরে বর্ণিত ১নং বিবাদী আসিয়া বাদীকে অশস্নীল ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে।  অপর বিবাদীগণ আসিয়া বাদীর নিজস্ব জায়গায় ÿÿত খামার নষ্ট করে। বাদীর ঘরের দরজায় লাথি মারিতে থাকিলে বাদী ঘর হইতে বাহির হয়। ১নং বিবাদী ঘরে প্রবেশ করিয়া বাদীর চুলের মুঠি ধরিয়া টানিয়া মাটিতে ফেলিয়া  এলোপাতাড়ি লাঠি দিয়া আঘাত করিয়া জখম করে। ২নং বিবাদী বাদীর মেয়ে মোর্শেদা আকতার(১৬)কে ঘর হইতে টানিয়া বাহির করিয়া এলোপাতাড়ী কিল,ঘুষি,লাথি মারিয়া মাটিতে ফেলিয়া দিয়া পাথর দিয়া পেটে আঘাত করে। পরবর্তীতে বাদীর ছেলে আসিয়া বাদী ও বাদীর মেয়েকে ডাক্তারের নিকট নিয়া চিকিৎসা করায়। উক্ত বিবাদীগণ বাদী ও বাদীর পরিবারকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করিতেছে।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া উক্ত ঘটনার  সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।         ইতি-------------------------------------০৩/০৯/২০১২ইংরেজী

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ১.জনাব মোঃ সেলিম  পিতাঃ মৃত মৃত আবদুচ ছত্তার, সাং বড়উঠান

            ওয়ার্ড  নংঃ০৮,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং

পÿÿ মোঃ আলমগীর পিতাঃ মৃত আবদুচ চত্তার সাং বড়উঠান ওয়ার্ড নং ০৮ থানা-পটিয়া,চ্ট্টগ্রাম।

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১. জনাব মোঃ ছৈয়দ  পিতাঃ মৃত আহমদ মিয়া

                   ২. জনাব মোঃ লিটন পিতাঃ মৃত দেলোয়ার হোসেন খান

                   ৩. জনাব মোঃ রিটন পিতাঃ ঐ

                   ৪. জনাব রফিক পিতাঃ মৃত আবদুল আজিজ               

         সর্বসাং বড়উঠান(নতুন পাড়া) ,ওয়ার্ড নংঃ ০৮,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১)বাদী  সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদীর খরিদা মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। বিগত১৩/০৬/২০১১ ইংরেজী তারিখে ৬৪৪৫নং কবলামূলে উক্ত তপশীলের ০৩ শতক জায়গা খরিদ করে। পরিমাপ করিয়া উক্ত জায়গা ক্রেতার নিকট হতে বুঝিয়া নেয়। বাদী নানা কাজে ব্যসত্ম থাকার কারনে  উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ গায়ের জোরে তপশীলের জায়গা জবর দখল করে। বাদী  পরিমাপ করিয়া  তাহার প্রাপ্য নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা  বুঝিয়া দেবার জন্য বলিলে উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ অশস্নীল ভাষায়  গালিগালাজ করিতে থাকে এবং নানা  প্রকার হুমকি প্রদান করে। বাদী  স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৩/০৯/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ বড়উঠান

আর,এস খতিয়ান নং ৯৯০ দাগ নং২৭৬৭

বি,এস খতিয়ান নং ৪৪ দাগনং১৭২৪

 সর্বমোট  ১৮ শতক তৎআন্দর বিক্রিত মোয়াজী ০৩শতক

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ৫নং বুরম্নমছড়া ইউনিয়ন পরিষদ,

       আনোয়ারা,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ১.বাবু টুনটু শীল  পিতাঃ মৃত সাধন শীল, সাং উত্তর বুরম্নমছড়া

            ওয়ার্ড  নংঃ০৩,থানাঃ আনোয়ারা,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.বাসু দেব শীল  পিতাঃ মৃত অভিলাষ শীল

                   ২. বাবু প্রনব শীল পিতাঃ পরিমল শীল

         সর্বসাং দৌলতপুর(হিন্দু পাড়া) ,ওয়ার্ড নংঃ ০৩,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১)বাদী  সহজ-সরল,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২) উপরে বর্ণিত বাদীর সহিত বন্দর থানা অমর্ত্মগত গোসরডাঙ্গা এলাকার বাবু রনজিত শীলের কন্যা উর্মি রানী শীলের শুভ বিবাহের দিন ধার্য হয়। উর্মি রানী শীল উপরে বর্ণিত বিবাদীর শ্যালিকা হয়। বাদীর বোনের জামাই বাবু স্বপন শীল দৌলতপুর এলাকার বিবাদীগণের চাচাত ভাই হয়। বিবাদীগণ ও বাবু স্বপন শীলের মধ্যস্থতায় বিবাহের কথা বার্তা চুড়ামত্ম হয়। বিবাদীগণ কনের দুলাভাই হওয়ায় কনের সম্পূর্ণ দায়িত্ব গ্রহণ করায় বাবু স্বপন শীল তাহাদের কথায় আশ্বসত্ম হইয়া নিমণবর্ণিত ব্যক্তিগণের উপস্থিতিতে সনাতন ধর্মের বিধান অনুসারে বিগত ২৩/০৭/২০১২ ইংরেজী তারিখে আর্শীবাদ সম্পন্ন হয়। পরবর্তী আশ্বিন মাসের প্রথম সপ্তাহে বিবাহের ধার্য হয়। বরপÿ কনের পÿÿর সহিত যোগাযোগ অব্যাহত রাখে। কিন্তু উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ প্রতারনা করিয়া উর্মি শীলকে গোপনে অন্য জায়গায় বিবাহ দেয়। বাদী পÿ  জানতে পারিয়া বিবাদীগণের সহিত যোগাযোগ করিয়া ঘটনা কথা জানিতে চাইলে বিবাদীগণ আস্ফালন করিয়া জানায় ভাল ছেলে পাওয়ায়  আমাদের ÿমতায়  আমরা বিবাহ দিয়াছি তোমাদের ÿমতায় তোমরা যা পার কর। তারপরেও বাদী পÿ বার বার  যোগাযোগ  করিয়া মীমাংসার চেষ্টা করিলে বিবাদীগণ বাদীপÿকে কটুক্তিমূলক কথাবার্তা বলিয়া নাজেহাল এবং নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে। আর্শীবাদের পর কনেকে অন্যত্র বিবাহ দেওয়ায় বাদীপÿÿর মান সন্মান , সামাজিক, ধর্মীয় ও আর্থিকভাবে যথেষ্ট ÿতি হয়। আর্শীবাদের সময় বাদী পÿ  কনে পÿকে সাজ-সজ্জার জিনিসপত্র এবং আংটি দেওয়া হয়। স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

                                                       

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৪/০৯/২০১২ইংরেজী

আর্শীবাদের সময় কনে পÿÿর উপস্থিত ব্যক্তিগণের নামঃ

১.পংকজ শীল

২.শংকর শীল

৩.প্রদীপ শীল

৪.শিবু মহাজন

৫.টিটু কুমার শীল

৬.মিটু কুমার শীল

 

 

 

 

 

 

 

 

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ বড়উঠান

আর,এস খতিয়ান নং ৯৯০ দাগ নং২৭৬৭

বি,এস খতিয়ান নং ৪৪ দাগনং১৭২৪

 সর্বমোট  ১৮ শতক তৎআন্দর বিক্রিত মোয়াজী ০৩শতক

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব আমির উদ্দীন খসরম্ন পিতাঃ মৃত মোঃ নুর হোসেন, সাং চর লÿ্যা   

            ওয়ার্ড  নংঃ০৫,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১১৯৯-১৮৯৮৪৬

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাবা রোকেয়া বেগম পিতাঃ মৃত আজিজুর রহমান

                   ২.জনাব মোঃ আইয়ুব পিতাঃ ঐ

                সাং দঃশাহমীরপুর (পুর্নবাসন সর্দার পাড়া)ওয়ার্ড নংঃ ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১) বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম ঝগড়াটে, লোভী ও বেপরোয়া প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) বিগত ১১/১২/২০০৯ ইংরেজী তারিখে উপরে বর্ণিত বাদীর সহিত ১নং বিবাদীর ইসলামী শরা-শরীয়ত ও কাবিননামা মূলে বিবাহ সম্পন্ন হয়। বিবাহের পর  বাদী ও বিবাদী সুখে শামিত্মতে বসবাস করিতে থাকে। যাহার প্রেÿÿতে বাদীর ঔরশে ও বিবাদীর গর্ভে  একপুত্র  সমত্মান জন্ম লাভ করে। কিন্তু পরবর্তীতে উক্ত বিবাদীর আসল চেহারা ধরা পড়ে। বাদী ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের উপর নানা প্রকার মানসিক নির্যাতন করিয়া আসিতেছে। উক্ত বিবাদী সংসারের প্রতি উদাসীন থাকে।সাংসারিক কাজ কর্ম করিতে উক্ত বিবাদী অনীহা প্রকাশ করে।বাদী মান সন্মান ও  ভবিষতের কথা ভাবিয়া বাদীর সমসত্ম অপরাধ সহ্য করিয়া আসিতেছে। কিন্তু দিন দিন উক্ত বিবাদীর অপরাধের মাত্রা বাড়িতেছে। যাহার প্রেÿÿতে বাদী শাসন করিতে গেলে উক্ত বিবাদী বাদীকে নাজেহাল করে। প্রায় ৫ মাস পূর্বে উপরে বর্ণিত ১নং বিবাদী তাহার ননদকে সংগে নিয়া বাপের বাড়ীতে বেড়াতে যায়। যাবার পর কাপড়চোপড় , স্বর্ণালংকার ও টাকাুপয়সা সঙ্গে নিয়া যায়। ১ মাস পর বাদী  বিবাদীকে আনিতে গেলে বাদীকে নানা কটুক্তিমূলক কথাবার্তা বলিয়া  নাজেহাল করে। পরবতীর্তে বাদীর পিতা আনিতে গেলে তাহাকে নাজেহাল করে। বাদী স্থানীয় ভাবে উক্ত বিষয়ে নি্ষ্পত্তির  চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

 

                  অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে    

               তলব করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৪/০৯/২০১২ইংরেজী

 

   

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ১নং জূলধা(ক) ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাবা রম্নজি আকতার পিতাঃ মুহাম্মদ ইব্রাহীম, সাং শাহমীরপুর  (জহির আহমদ সওদাগরের বাড়ী ) ওয়ার্ড  নংঃ০৬,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৮৩২-২৪৮৫৫০

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মুহাম্মদ হাসান পিতাঃ মৃত শামসুল আলম

                সাং জুলধা ,ওয়ার্ড নংঃ ০ ,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী , বেপরোয়া ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) বিগত ২৫/০২/২০১১ ইংরেজী তারিখে উপরে বর্ণিত বাদীর সহিত বিবাদীর ইসলামী শরা-শরীয়ত ও কাবিননামা মূলে বিবাহ সম্পন্ন হয়। বিবাহের পর উপরে বর্নিত বিবাদী বাদীকে নিয়া তাহার ভাড়া বাসায় তোলে। চার দিন পর উক্ত বিবাদী  যৌতুক দাবী করিয়া বাদীকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করিয়া বাসা হতে বের করে দেয়। বাদী বাপের বাড়ীতে আসিলে বাদীর মা স্থানীয় গণ্যমান্য ও মেম্বার সাহেবকে অবহিত করিলে তাহারা বিবাদী ও বিবাদীর চাচাদের নিয়া মীমাংসার চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়। উক্ত বিবাদী  তাহার দাবীকৃত যৌতুক না দিলে  বাদীর বাড়ীতে আসিয়া বাদী ও বাদীর মাতাকে অশস্নীল ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে এবং বাদী ও বাদীর মাতাকে  নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে। বাদী স্থানীয় ভাবে উক্ত বিষয়ে নি্ষ্পত্তির  চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

            অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।  

              

        ইতি-------------------------------------০৪/০৯/২০১২ইংরেজী

 

   

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ১.জনাব শামতারা দাশ  স্বামীঃ শ্রীধাম দাশ

সাং শাহমীরপুর ওয়ার্ড  নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

           

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১. টুনু বালা দাশ  স্বামীঃ মৃত হরিবন্ধু দাশ  মোবাইল নং ০১৮২০-০৩৮৩০১

                   ২. হরিলাল দাশ  পিতাঃ মৃত হরিবন্ধু দাশ

         সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওয়ার্ড নংঃ ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১)বাদী  সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২) উপরে বর্ণিত ১নং বিবাদীর স্বামী বাদীর সৎ ভ্রাতা হয়। নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদীর মৌরশী মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জায়গায় বাদী দীর্ঘ ৫০ বছর ধরে বসবাস করিয়া আসিতেছে। বর্তমানে জনসংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় বাদী থাকার জন্য ঘর নির্মাণ করিতে গেলে উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ বাধা প্রদান করে এবং বাদীকে অশস্নীল ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে। বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করিতেছে। বাদী  স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৩/০৯/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ শাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং ১৩৬৮ দাগ নং১১০৩১৩

বি,এস খতিয়ান নং ২৮ দাগনং১৫০০৮

 সর্বমোট  ২কড়া ১কন্ট ৩দমত্ম বা দেড় শতক

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ বিবাদী মৃত্যুবরন করায় তাহার ওয়ারিশগণকে বিবাদী হিসেবে অমর্ত্মভূক্ত করার আবদেন।

জনাব,

উপরে বর্নিত বিষয়ে আপনার সদয় অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জানানো যাচ্ছে যে, আমি আপনার গ্রাম আদালতের ৪১/১১ নং মামালার বাদী হই। উক্ত মামলার বাদী জনাব মোঃ আবদুচ ছমদ ছাবেরী মৃত্যু বরন করায় তাহার পÿÿ তাহার নিমণবর্ণিত ওয়ারিশগণকে উক্ত মামলার বিবাদী হিসেরস অমর্ত্মভূক্ত করিয়া পুনরায় মামলার কার্যক্রম শুরম্ন করার জন্য আপনার নিকট সবিনয় অনুরোধ রহিল।

 

                                                         নিবেদক

 

মোঃ ছৈয়দ নবী পিতাঃ মৃত আহমদ মিয়া

সাং শাহমীরপুর

ওয়ার্ড নং-০৬,

থানাঃ কর্ণফুলী,

জেলাঃ চট্টগ্রাম।

মরহুম আবদুচ ছমদ ছাবেরীর ওয়ারিশগণের নামঃ

১.মোঃ আবদুর রহিম

২.মোঃ আবদুল হক

৩.মোঃ ইকবাল

৪.মোঃ মহি উদ্দীন টিপু

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

        বিষয়ঃ মৌরশী  সম্পত্তি জবর দখলকারীদের বিরম্নদ্ধে প্রতিকার প্রসঙ্গে। ০১৮২৯-৯৪০৪৭০

          বাদীঃ ১.জনাব   পিতাঃ মৃত নজির আহমদ

        সাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ ০৫,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

                                             বনাম

    বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ এজাহার মিয়া পিতাঃ মৃত গোলাম হোসেন   

              ২. জনাব মোঃ আবদুল মন্নান  পিতাঃ আবদুল গণি

    সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ ০৫,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

১)বাদীগণ সহজ-সরল, নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদী পিতার খরিদা মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জয়গার প্রায় ১০ গন্ডা বাদীর দখলে স্থিত আছে।বাদীগণের পিতার মৃত্যুর পর উক্ত তপশীলের জায়গা  উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ গায়ের জোরে দখল করে। বাদী পরিমাপ পরিমাপ করিয়া তাহার প্রাপ্য অংশ বুঝিয়া দেবার কথা বলিলে উক্ত বিবাদীগণ নানা কটুক্তিমূলক কথা বলিতে থাকে এবং বাদীগণকে মারার জন্য চেষ্টা করে। বাদী স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------১১/০৭/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ শাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং ২৬৬৮ /২৬৭৬ /১২০০দাগ নং ৬৩৭৭/৬৩৮০/৬৩৮৬/৬৩৯৩/৬৩৯২/৬৩৯০/ ২৭০৮/২৭০৯/২৭১০/২৭১১/২৭১৩/২৭১৬

সর্বমোট ৫০শতক বা ২৫গন্ডা

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

        বিষয়ঃ মৌরশী  সম্পত্তি জবর দখলকারীদের বিরম্নদ্ধে প্রতিকার প্রসঙ্গে। ০১৮২৯-৯৪০৪৭০

          বাদীঃ ১.জনাব আবদুল হামিদ   পিতাঃ মৃত আবুল হোসেন

        সাং দৌলতপুর(শাহমীরপুর) ,(ছমাদার বাড়ী)ওয়ার্ড নংঃ ০২,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

                                             বনাম

    বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ ইমাম শরীফ পিতাঃ মৃত শমি উদ্দীন   

             ২. জনাব আবুল কালাম পিতাঃ মৃত মোঃ আমিন শরীফ 

   ৩.জনাব জানে আলম পিতাঃ ঐ

   ৪.জনাবা নুর বাহার পিতাঃ ঐ

  ৫.জনাব আবদুল শুক্কুর পিতাঃ মৃত ওয়াজ উদ্দীন

    সর্বসাং দৌলতপুর(ছমাদর পাড়া) ,ওযার্ড নংঃ ০২,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

১)বাদীগণ সহজ-সরল, নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদীর মৌরশী মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জয়গা বাদীর দখলে স্থিত আছে। কিন্তু  উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ গায়ের জোরে উক্ত তপশীলের বাদী প্রাপ্য অংশে ঘর নির্মাণ করার জন্য শুরম্ন করে। বাদী বাধা প্রদান করিলে বিবাদীগণ অশস্নীল ভাষায় গালিগালাজ সহকারে মারার জন্য উদ্যত হয়। বিবাদী ÿÿপ্ত হইয়া বাদীগং এর চলাচলের রাসত্মা বন্ধ করিয়া দেয়। বাদী স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৬/০৯/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ শাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং১৭৫১ দাগ নং৭৮২৪

বি,এস খতিয়ান নং             দাগ নং

সর্বমোট ৯ শতক বা সাড়ে ৪ গন্ডা

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব  রম্নজি আকতার পিতাঃ মৃত জালাল আহমদ, সাং দঃ শাহমীরপুর(জাগির পাড়া)   

            ওয়ার্ড  নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব জনাব আলী পিতাঃ মৃত গোলাম সোবহান

                সাং দঃশাহমীরপুর (জাগির পাড়া)ওয়ার্ড নংঃ ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১) বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় ও অবলা পলস্নীবধু   হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম ঝগড়াটে, লোভী,জুলুমবাজ ও বেপরোয়া প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) বিগত ০৬/০৪/২০০৭ ইংরেজী তারিখে উপরে বর্ণিত বাদীর সহিত  বিবাদীর ইসলামী শরা-শরীয়তমতে ও কাবিননামা মূলে বিবাহ সম্পন্ন হয়। বিবাহের পর  বাদী ও বিবাদী সুখে শামিত্মতে বসবাস করিতে থাকে। যাহার প্রেÿÿতে বাদীর ঔরশে ও বিবাদীর গর্ভে এক কন্যা ও একপুত্র  সমত্মান জন্ম লাভ করে। কিন্তু পরবর্তীতে উক্ত বিবাদীর আসল চেহারা ধরা পড়ে। বিবাদী ও বিবাদীর পরিবারের অন্যান্য সদস্যগণ বাদীর উপর নানা প্রকার শারীরিক মানসিক নির্যাতন করিয়া আসিতেছে। বাদী মান সন্মান ও  তাহার সমত্মানদের ভবিষতের কথা ভাবিয়া বাদীর সমসত্ম অপরাধ  নীরবে সহ্য করিয়া আসিতেছে। কিন্তু দিন দিন উক্ত বিবাদীর অপরাধের মাত্রা বাড়িতেছে। প্রায় ৩ মাস পূর্বে উপরে বর্ণিত  বিবাদী বাদীকে শারীরিব ভাবে নাজেহাল করিয়া ঘরে হইতে বাহির করিয়া দিলে বাদী বাপের বাড়ীতে চলিয়া যায়। তিন মাস অতিবাহিত হইলেও উক্ত বিবাদী বাদী ও বাদীর সমত্মানদের খোজঁখবর নেয় নাই। এমনি কি তাহার তিন মাসের নবজাতক শিশুর পর্যমত্ম কোন খোজঁখবর নিচ্ছে না । বাদী স্থানীয় ভাবে উক্ত বিষয়ে নি্ষ্পত্তির  চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

 

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

        ইতি-------------------------------------০৬/০৯/২০১২ইংরেজী

 

   

 

 

 

 

বরাবরে,

        মেয়র সাহেব,

        চন্দনাইশ পৌরসভা,

       চন্দনাইশ,চট্টগ্রাম।

        বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবেদন ।

          বাদীঃ ১.জনাব আহমদ হোসেন  পিতাঃ মৃত জেবল হোসেন মোবাইর নং-০১৮১২-৫৮৩০৮১

        সাং বড়উঠান( ডাকপাড়া)ওয়ার্ড নংঃ ০৯,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

                                             বনাম

    বিবাদীঃ ১.জনাব কাজী মোঃ হোসেন আজাদ পিতাঃ মৃত কাজী বদিয়র রহমান   

             ২. জনাব মোঃ রোকন পিতাঃ কাজী মোঃ হোসেন আজাদ

          সর্বসাং গাছবাড়িয়া,ওয়ার্ড নং-০৯,চন্দনাইশ পৌরসভাঃ জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

১)বাদীগণ সহজ-সরল, নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, প্রতারক ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২) বিগত ২০/০৮/২০১১ ইংরেজী উপরে বর্ণিত বাদীর সহিত বিবাদীগণের ভিসা প্রদানের ব্যাপারে কথাবার্তা চুড়ামত্ম হলে উভয় পÿÿর মধ্যে একটি চুক্তি পত্র সম্পাদিত হয়। ঐ দিন  এবং  তার কিছু দিন পর ভিসার বাবদ নির্ধারিত ফি এর প্রায় টাকা পরিশোধ করিলে উক্ত বিবাদীগণ আবুধাবীর একখানা ভিসার প্রদান করে। বাদীর ভিসা পাওয়ার উক্ত বিবাদীগণের কথামত ঢাকা গিয়া  ফিঙ্গার প্রিন্ট প্রদান করিয়া একখানা কার্ড গ্রহণ করে। পরবর্তীতে বাদী উক্ত বিবাদীগণের সহিত যোগাযোগ করিলে তাহারা জানায় উক্ত ভিসা হইবে না তোমার জন্য আরেকখানা ভিসা পাঠাইব। কিছুদিন পর উক্ত বিবাদীগণ আরেক খানা ভিসা পাঠাইলে বাদী বিবাদীর কথামত চট্টগ্রাম শহরে গিয়া ফিঙ্গার প্রিন্ট প্রদান করে । কিন্তু এইবার কোন কার্ড প্রদান করে নাই। বাদী পূর্বের ন্যায় বিবাদীগণের সহিত যোগাযোগ করিলে তিনি জানায় এই ভিসাও  হইবে না তোমার জন্য পুনরায়  আরেকখানা ভিসা পাঠাইব।  কিছুদিন পর উক্ত বিবাদীগণ আরেক খানা ভিসা পাঠাইলে বাদী ১নং বিবাদীর সহিত দেখা করে। এই সময় বাদীর উক্ত বিবাদীর ভিসার ব্যাপারে কথাকাটি হইলে বিবাদী বাদীকে অশস্নীল ভাষায় গালিগালাজ সহকারে নাজেহাল করিয়া তাড়িয়া দেয়।পরবর্তীতে বাদী মোবাইলে উক্ত বিবাদীর সহিত যোগাযোগ করিলে বিবাদী অশস্নীল ভাষায় করিতে থাকে এবং বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে।

     এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া উক্ত ঘটনার    

         সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

        ইতি-------------------------------------১১/০৯/২০১২ইংরেজী

সাÿীগণের নামঃ ১.কাজী মোঃ মহিউদ্দীন পিতা-নুরম্নল ইসলাম সাং গাছবাড়িয়া,চন্দনাইশ।

২.আলহাজ্ব কাজী মোঃ ইউছুপ পিতা-আলহাজ্ব কাজী মোঃ ইব্রাহীম সাংঐ ৩.আবদুল হাদি পিতা-মৃত ফজল আহমদ সাং বড়উঠান ৪.নুর হোসেন সিকদার পিতা- ফজল করিম সিকদার সাং ঐ

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

  

      বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

 

     বাদীঃ মিসেস অলি গোমেজ স্বামীঃ নিপু গোমেজ,

     সাংঃ দৌলতপুর(মরিয়ম আশ্রম দেয়াং)  ওয়ার্ড  নংঃ০১,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৭৪৯- 

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.মি. জন ননাই দাশ পিতাঃ নিকুঞ্জ দাশ

          সাংঃদৌলতপুর(মরিয়ম আশ্রম দেয়াং)  ওয়ার্ড  নংঃ০১,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                

 

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় অবলা মহিলা হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম নিষ্ঠুর,  ও সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) উপরে বর্ণিত বিবাদী বাদীর ননদের জামাই হয়। বিগত ০৬/০৯/২০১২ ইংরেজী তারিখে রাত ১১.০০ ঘটিকায় উপরে বর্ণিত বিবাদী মাতাল অবস্থায় বাদীকে অশস্নীল ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে। সেই সময় বাদী  ঘরে ভেতর ছিল। উক্ত বিবাদী  দা- চুরি নিয়া বাদীর ঘরে প্রবেশের জন্য চেষ্টা করে। বিবাদী  প্রায় সময় বাদীকে নানা কটুক্তিমূলক কথাবার্তা বলিয়া নাজেহাল করে এবং বাদীর ঘরে প্রবেশ করিয়া বাদীর খাটে শুইয়া থাকে। বাদী মান সন্মানের কথা ভাবিয়া সকল কিছু সহ্য করে। বিবাদী বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে। বাদী স্থানীয় ভাবে উক্ত বিষয়ে নি্ষ্পত্তির  চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

 

                  অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া উক্ত

        ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------১১/০৯/২০১২ইংরেজী

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ১.জনাব জহির আহমদ পিতাঃ মৃত জালাল আহমদ

          সাং দৌলতপুর(ইউছুপ মেম্বারের বাড়ী)  ওয়ার্ড  নংঃ০১,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৮১৩-৯৯৪২৫২

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব জাফর আহমদ পিতাঃ মৃত জালাল আহমদ         

সাং দৌলতপুর(ইউছুপ মেম্বারের বাড়ী)  ওয়ার্ড  নংঃ০১,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম

        

 

১)বাদী  সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদী এর মৌরশী মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। বাদী নানা কাজে ব্যসত্ম থাকার কারনে উক্ত তপশীলের জায়গা  উপরে বর্ণিত বিবাদী সম্পূর্ণ গায়ের জোরে দখল করে।।  বাদী পরিমাপ করিয়া তাহার প্রাপ্য অংশ বুঝিয়া দেবার নানা প্রকার হুমকি প্রদানসহ  কটুক্তিমূলক কথা বলিতে থাকে । বাদী  স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদীগং নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------১১/০৯/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ শাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং ১৫৮০ দাগ নং২২২৪

বি,এস খতিয়ান নং            দাগনং

 সর্বমোট ০৩শতক বা দেড় গন্ডা

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ১.জনাবা সালমা খাতুন  স্বামীঃ মৃত রশিদ, সাং বড়উঠান

            ওয়ার্ড  নংঃ০৯,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১. জনাব হাজেরা খাতুন  স্বামীঃ বদন আলী

         সর্বসাং বড়উঠান(আশার বাপের বাড়ী/ডাক পাড়া),ওয়ার্ড নংঃ ০৯,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১)বাদী  সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)উপরে বর্ণিত বাদী ও বিবাদী পাড়া প্রতিবেশী হয়। বিবাদী বিপদে পড়িয়াছে বলিয়া বাদীকে অনুনয় বিনয় করিয়া ব্যাংক হইতে কিছু টাকা ঋণ নিয়া বাদীকে বলে এবং ব্যাংকের শর্ত মোতাবেক কিসিত্মতে উক্ত টাকা পরিশোধ করার অঙ্গীকার করে। বাদী বিবাদীর কথা সরল মনে বিশ্বাস করে ব্যাংক হইতে ৪৫,০০০.০০ টাকা নিয়া বিবাদীকে প্রদান করে। উক্ত বিবাদী কিসিত্ম  করিয়া মোট ২৫,০০০.০০ টাকা পরিশোধ করে। অবশিষ্ট ২০,০০০.০০টাকা প্রদানে বিবাদী অনীহা প্রকাশ করে। ব্যাংক হইতে  টাকা পরিশোধ করার জন্য বাদীকে তাগাদা দিলে বাদী ধার কর্জ করিয়া কিছু টাকা পরিশোধ করে। বাদী অতীব গরীব বিধায় উক্ত টাকা পরিশোধ করার বাদীর পÿÿ সম্ভব নয়। তাই বাদী বিবাদীকে অবশিষ্ট ২০,০০০.০০ টাকা প্রদান করার জন্য বলিলে  বিবাদী অশস্নীল ভাষায়  গালিগালাজ করিতে থাকে এবং নানা  প্রকার হুমকি প্রদান করে। বাদী  স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৩/০৯/২০১২ইংরেজী

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব  ছানোয়ারা বেগম পিতাঃ মৃত মোঃ আবু ইউসুফ, সাং দৌলতপুর(মির্জা আলী তালুকদার বাড়ী) ,ওয়ার্ড 

      নংঃ০২,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং ০১৮২৯-৬৯৬৩৯৪

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ ইলিয়াছ পিতাঃ মৃত মোহাম্মদ হোসেন

                   ২.জনাব মোঃ এখলাছ পিতাঃ ঐ

                   ৩.জনাব ইউসুফ মোহাম্মদ

সাং দৌলতপুর(মির্জা আলী তালুকদার বাড়ী) ,ওয়ার্ড  নংঃ০২,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                

 

১) বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় ও অবলা পলস্নীবধু   হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম ঝগড়াটে, লোভী, নিষ্ঠুর ও বেপরোয়া প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) বিগত ৩০ বছরে পূর্বে উপরে বর্ণিত বাদীর সহিত  বিবাদীর ইসলামী শরা-শরীয়তমতে ও কাবিননামা মূলে বিবাহ সম্পন্ন হয়। বিবাহের পর  বাদী ও বিবাদী সুখে শামিত্মতে বসবাস করিতে থাকে। যাহার প্রেÿÿতে বাদীর ঔরশে ও বিবাদীর গর্ভে দুই কন্যা ও তিনপুত্র  সমত্মান জন্ম লাভ করে। কিন্তু পরবর্তীতে উক্ত বিবাদীর আসল চেহারা ধরা পড়ে। বিবাদীগণ ও  পরিবারের অন্যান্য সদস্যগণ বাদীর উপর নানা প্রকার শারীরিক মানসিক নির্যাতন করিয়া আসিতেছে। বাদী মান সন্মান ও  তাহার সমত্মানদের ভবিষতের কথা ভাবিয়া বাদীর সমসত্ম অপরাধ  নীরবে সহ্য করিয়া আসিতেছে। কিন্তু দিন দিন উক্ত বিবাদীর অপরাধের মাত্রা বাড়িতেছে। প্রায় ৪ মাস পূর্বে উপরে বর্ণিত  বিবাদী বাদীকে শারীরিক ভাবে নাজেহাল করিয়া এবং মৌখিকভাবে তালাক প্রদান করিয়া ঘরে হইতে বাহির করিয়া দিলে বাদী বাপের বাড়ীতে চলিয়া যায়। কিছুদিন পর স্থানীয় চেয়ারম্যান জনাব মোঃ আলহাজ্ব মোঃ দিদারম্নল আলম এবং ৩ নং শিকলবাহা  ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব মোঃ আবুল কালাম বকুল  এর উপস্থিতিতিতে  অনুষ্ঠিত সালিশী বৈঠকের সিদ্ধামত্ম মোতাবেক বাদী ও বাদীগণের ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটাইয়া পুনরায় বাদীকে তাহার স্বামীর ঘরে নিয়া  যাওয়া হয়। বিবাদীগণ পটিয়া মাদ্রাসার শিÿক জনাব মাওলানা আহমুদুলস্নাহ এবং মাওলানা জসিম উদ্দীন কাসেমী এর স্বাÿরিত তালাকের সনদ গ্রহণ করিয়া উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ বাদীকে নানাভাবে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করিতেছে এবং বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করিয়া করিতেছে। বাদী স্থানীয় ভাবে উক্ত বিষয়ে নি্ষ্পত্তির  চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

 

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

        ইতি-------------------------------------০৬/০৯/২০১২ইংরেজী

 

   

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাবা ফরিদা বেগম পিতাঃ মৃত মোঃ নুরম্নল্আলম, সাং বদলপুরা(মেরিন একাডেমী) ,

      থানাঃ আনোয়ারা ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ জসিম পিতাঃ মৃত মোহাম্মদ হারম্নন

         সাং দঃশাহমীরপুর (জানে আলমের বাড়ী) ,ওয়ার্ড  নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

               

 

১) বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় ও অবলা পলস্নীবধু   হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম ঝগড়াটে, লোভী, নিষ্ঠুর ও বেপরোয়া প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) বিগত ৩০ বছরে পূর্বে উপরে বর্ণিত বাদীর সহিত  বিবাদীর ইসলামী শরা-শরীয়তমতে ও কাবিননামা মূলে বিবাহ সম্পন্ন হয়। বিবাহের পর  বাদী ও বিবাদী সুখে শামিত্মতে বসবাস করিতে থাকে। যাহার প্রেÿÿতে বাদীর ঔরশে ও বিবাদীর গর্ভে দুই কন্যা  সমত্মান জন্ম লাভ করে। কিন্তু পরবর্তীতে উক্ত বিবাদীর আসল চেহারা ধরা পড়ে। উক্ত বিবাদী বাদীর উপর নানা প্রকার শারীরিক মানসিক নির্যাতন করিয়া আসিতেছে। বাদী মান সন্মান ও  তাহার সমত্মানদের ভবিষতের কথা ভাবিয়া বাদীর সমসত্ম অপরাধ  নীরবে সহ্য করিয়া আসিতেছে। কিন্তু দিন দিন উক্ত বিবাদীর অপরাধের মাত্রা বাড়িতেছে। গত ০৭ দিন পূর্বে উপরে বর্ণিত  বিবাদী বাদীকে শারীরিক ভাবে নাজেহাল করিয়া এবং  ঘরে হইতে বাহির করিয়া দিলে বাদী বাপের বাড়ীতে চলিয়া যায় এবং বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করিয়া করিতেছে। বাদী স্থানীয় ভাবে উক্ত বিষয়ে নি্ষ্পত্তির  চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া উক্ত ঘটনার    

       সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠুভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

        ইতি-------------------------------------১৪/০৯/২০১২ইংরেজী

 

   

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

তারিখঃ ১৪/০৯/২০১২ ইংরেজী

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ খতিয়ানভূক্ত শরীকগণকে মামলার অমর্ত্মভূক্ত করার জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব মোঃ ইউনুচ পিতাঃ মৃত  সাং রমিজ আহমদ সাংদৌলতপুর ওয়ার্ড় নং-০১,  

      থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং

                                                  বনাম

     বিবাদীঃ ১.জনাব ফরিদ আহমদ পিতাঃ মৃত নওশা মিয়া সাংদৌলতপুর ওয়ার্ড় নং-০১,  

      থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং০১৮১৯-৬০৪৬৬৯

জনাব,

      সবিনয় নিবেদন এই যে, আমি আপনার গ্রাম আদালতের ৬৭/১২ নং মামলার বাদী হই। মামলার বিষয় জায়গা সংক্রামত্ম হওয়ায় আর,এস খতিয়ান নং ৩১ এর নিমণবর্ণিত শরীকগণকে উক্ত মামলার অর্মত্মভূক্ত করিয়া মামলাটি নিষ্পত্তি করিয়া বাধিত করবেন।

শরীকগণের নামঃ

১.জনাব এয়ার মোহাম্মদ পিতাঃ মৃত ফয়েজ আহমদ

২.জনাব সৈয়দ নুর পিতাঃ মৃত আলী আহমদ

৩.জনাব শামসুল আলম পিতাঃ মৃত আহমদুর রহমান

৪.জনাব নুরম্নল ইসলাম পিতাঃ মৃত নজির আহমদ

সর্বসাং দৌলতপুর, ইউসুফ মেম্বারের বাড়ী,ওয়ার্ড নং-০১,থানা-পটিয়া,জেলা-চট্টগ্রাম

 

                                                                   নিবেদক

 

 

                        

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাবা ফরিদা বেগম পিতাঃ মৃত মোঃ নুরম্নল্আলম, সাং বদলপুরা(মেরিন একাডেমী) ,

      থানাঃ আনোয়ারা ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ জসিম পিতাঃ মৃত মোহাম্মদ হারম্নন

         সাং দঃশাহমীরপুর (জানে আলমের বাড়ী) ,ওয়ার্ড  নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

               

 

১) বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় ও অবলা পলস্নীবধু   হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম ঝগড়াটে, লোভী, নিষ্ঠুর ও বেপরোয়া প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) বিগত ৩০ বছরে পূর্বে উপরে বর্ণিত বাদীর সহিত  বিবাদীর ইসলামী শরা-শরীয়তমতে ও কাবিননামা মূলে বিবাহ সম্পন্ন হয়। বিবাহের পর  বাদী ও বিবাদী সুখে শামিত্মতে বসবাস করিতে থাকে। যাহার প্রেÿÿতে বাদীর ঔরশে ও বিবাদীর গর্ভে দুই কন্যা  সমত্মান জন্ম লাভ করে। কিন্তু পরবর্তীতে উক্ত বিবাদীর আসল চেহারা ধরা পড়ে। উক্ত বিবাদী বাদীর উপর নানা প্রকার শারীরিক মানসিক নির্যাতন করিয়া আসিতেছে। বাদী মান সন্মান ও  তাহার সমত্মানদের ভবিষতের কথা ভাবিয়া বাদীর সমসত্ম অপরাধ  নীরবে সহ্য করিয়া আসিতেছে। কিন্তু দিন দিন উক্ত বিবাদীর অপরাধের মাত্রা বাড়িতেছে। গত ০৭ দিন পূর্বে উপরে বর্ণিত  বিবাদী বাদীকে শারীরিক ভাবে নাজেহাল করিয়া এবং  ঘরে হইতে বাহির করিয়া দিলে বাদী বাপের বাড়ীতে চলিয়া যায় এবং বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করিয়া করিতেছে। বাদী স্থানীয় ভাবে উক্ত বিষয়ে নি্ষ্পত্তির  চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া উক্ত ঘটনার    

       সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠুভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

        ইতি-------------------------------------১৪/০৯/২০১২ইংরেজী

 

   

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ শ্রীমতি হেমলতা দাশ স্বামীঃ নটবর জলদাশ সাং ৩০৪নং বংশাল রোড় ,টেকপাড়া, ফিরিঙ্গী  

       বাজার,ডাকঘর-জিপিও,থানাকোতোয়ালী,জেলা-চট্টগ্রাম।                                                      

                      বনাম

          বিবাদীঃ বাবু নিরঞ্জন দাশ পালক পিতাঃ মৃত মোহন বাশিঁ দাশ         

        সাং দঃশাহমীরপুর(সনাতন পাড়া)  ওয়ার্ড  নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম

        

 

১)বাদী  একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদী এর মৌরশী মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জায়গা বাদীর মাতামহ মৃত মোহন বাশিঁ দাশের ত্যাজ্য সম্পত্তি হয়। তাহার মৃত্যুর পর উক্ত তপশীলের সম্পত্তির মালিক হয় তাহার ঔরশজাত ৫ কন্যা। উপরে বর্ণিত বিবাদী মৃত মোহন বাশিঁর দাশের পালিত পুত্র হয়। মোহন বাশিঁ দাশের মৃত্যুর পর  কোন পুত্র সমত্মান না থাকায় উক্ত তপশীলের সম্পত্তির মালিক হয় তাহার ৫ কন্যা। উক্ত কন্যা মৃত্যু বরন করলে পালিতপুত্র  উপরে বর্নিত বিবাদী জোর পূর্বক উক্ত সম্পত্তি দখল করিয়া ব্যাপক ÿতি সাধন করে।  উপরে বর্ণিত বাদী মোহন বাশিঁ দাশের কন্যা কুমদা রানী দাশের কন্যা সমত্মান হয়। বাদী পরিমাপ করিয়া তাহার প্রাপ্য অংশ বুঝিয়া দেবার কথা বলিলে বিবাদী নানা প্রকার হুমকি প্রদানসহ  কটুক্তিমূলক কথা বলিতে থাকে । বাদী  স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------১১/০৯/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ শাহমীরপুর

বি,এস খতিয়ান নং  ১৮৮৩/১৮৮২/১৬৪/৩০৭০/২৯৯৫/২৮৬২ দাগনং ১৫০৫৫/৪৯৩/৫০১/৫০০/৫১৪ /৫০৮/ ১৫৩৭৫/১৫৩৭৬/১৫০৫৭

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ সময়ের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব মোঃ শরীফ পিতাঃ মৃত  সাং মৃত লাল মিয়া সাংদৌলতপুর ওয়ার্ড় নং-০৩,  

      থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং

                                                  বনাম

     বিবাদীঃ ১.জনাব আবুল হাশেম পিতাঃ মৃত ওমদা  মিয়া

               ২.আজগর পিতাঃ ঐ

              ৩.আবদুস সালাম পিতাঃ মৃত নুর আহমদ

              ৫.আবদুল মন্নান পিতাঃ ঐ

        সর্বসাংদৌলতপুর ওয়ার্ড় নং-০৩,  থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

জনাব,

        সবিনয় নিবেদন এই যে, আমি নিমণ স্বাÿরকারী আপনার গ্রাম আদালতের ১১৭/১২ নং মামলার বিবাদী হই। মামলার বিষয় জাগয়া-জমি সংক্রামত্ম হওয়ায় কাগজ পত্র সংগ্রহ করার জন্য তিন মাসের সময়ের প্রয়োজন।

 

        অতএব মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, আমাকে তিন মাসের সময় প্রদান করিয়া বাধিত করবেন।

 

 

 

                                                                              নিবেদক

   তারিখঃ২২/০৯/২০১২ইংরেজী                                           

                                                                            আবদুস সালাম

                                                                         পিতাঃ মৃত নুর আহমদ

                                                                         সাংদৌলতপুর ওয়ার্ড় নং-০৩,  

                                                                        থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,      

         গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।    

        বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবেদন ।

          বাদীঃ ১.জনাব আবদুল হাকিম  পিতাঃ মৃত বশির আহমদ মোবাইর নং-০১৮২৪-৮৩১৬৯৮

        সাং দৌলতপুর( আলী আহমদ চেয়ারম্যানের পুরাতন বাড়ী)ওয়ার্ড নংঃ ০৩,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

                                             বনাম

    বিবাদীঃ ১.জনাব আবদুস সবুর মেম্বার পিতাঃ মৃত আতর আলী  

          সর্বসাং বড়উঠান,(খিলপাড়া), ওয়ার্ড নং-০৮,থানাঃ পটিয়া, জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

১)বাদীগণ সহজ-সরল, নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, প্রতারক ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২) উপরে বর্ণিত বাদীর সহিত বিবাদীগণের ভিসা প্রদানের ব্যাপারে কথাবার্তা চুড়ামত্ম হলে উভয় পÿÿর মধ্যে মৌখিকভাবে কথাবার্তা চুড়ামত্ম হয়।  তার কিছু দিন পর ভিসার বাবদ নির্ধারিত ফি এর সম্পূর্ণ টাকা পরিশোধ করিলে উক্ত বিবাদী দুবাই এর একখানা ভিসার প্রদান করে। বাদীর ভিসা পাওয়ার পর  বাদী উক্ত বিবাদী সহিত যোগাযোগ করিয়া  বিগত ২২/০৩/২০১২ইংরেজী তারিখে দুবাই গমন করে। বিবাদীর সহিত বাদীর কথা বার্তা হয় টেইলারিং দোকানের ভিসা,আটঘন্টা ডিউটি,মাসিক বেতন ১০০০.০০ দেরহাম, আরবী আরবাব(মালিক)। বাদী দুবাই গমন করার পর কাজে যোগদান করিয়া জানতে পারে যে ভিসায় বাদী কাজে যোগদান করেছে সেই ভিসা গার্মেন্টেসের, ডিইটি ১৫ ঘন্টা, বেতন ৫৫০.০০ দেরহাম এবং মালিক বাঙালী। বাদী বিবাদীর ছেলেকে জানাইলে তিনি জানায় আমার ভুল হয়েছে এখন কিছু করার নাই। তখন বাদী তাহাকে জানায় তাহলে আমাকে ক্যান্সেল করিয়া দেশে পাঠাইয়া দেন। তিনি বাদীকে  দেশে চলিয়া যাওয়ার জন্য বলে এবং বাদীর টাকা ফেরত দানের প্রতিশ্রম্নতি দেন। তারপর তিনি মালিককে বলিয়া বাদীর  ভিসা বাতিল করিয়া বাদীকে দেশে পাঠাইয়া দেয়। দেশে আসিয়া বাদী বিবাদীর সহিত যোগাযোগ করিয়া  টাকা ফেরত দানের কথা বলিলে  বাদীর সহিত বিবাদীর কথাকাটি হয়।  বিবাদী বাদীকে  নানা কটুক্তিমূলক কথাবার্তা বলে এবং বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

    

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া উক্ত ঘটনার    

         সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

        ইতি-------------------------------------১১/০৯/২০১২ইংরেজী

সাÿী নামঃ ১.জনাব মোঃ হারম্নন তালুকদার ইউপি, মেম্বার পিতা-মৃত আবুল কাশেম সাং দৌলতপুরা,পটিয়া।

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

        বিষয়ঃ মৌরশী/খরিদা মূলে প্রাপ্ত  সম্পত্তি জবর দখলকারীদের বিরম্নদ্ধে প্রতিকার প্রসঙ্গে।

          বাদীঃ ১.জনাব শফিউল আলম গং   পিতাঃ মৃত লাল মিয়া

                  ২.জনাব মোঃ মুছা পিতাঃ মৃত আবুল হোসেন

     সাং শাহমীরপুর,(সওদাগর পাড়া সোনার বাপের বাড়ী)ওয়ার্ড নংঃ০৭,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

                                             বনাম

    বিবাদীঃ ১.জনাব মজি উলস্নাহ পিতাঃ মৃত নুরচ্ছফা  

             ২. জনাব মোহাম্মদ আলী পিতাঃ মৃত ঐ

   ৩.জনাব আবুল কাশেম পিতাঃ মৃত আলী আহমদ

    সর্বসাং শাহমীরপুর(সওদাগর পাড়া সোনার বাপের বাড়ী),ওযার্ড নংঃ ০২,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

১)বাদীগণ সহজ-সরল, নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদীর মৌরশী/খরিদা মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জায়গা শের আলী পিতাঃ মৃত কালা মিয়া ও লাল মিয়া পিতাঃ মৃত আসাদ আলী সাং দঃশাহমীরপুর এর সম্পত্তি হয়। মরহুম শের আলী ২নং বিবাদী ও  বিবাদীর স্ত্রীর নিকট উক্ত তপশীলের তাহার প্রাপ্য অংশ বিক্রয় করে। লাল মিয়া মৃত্যুবরন করলে  তাহার ৪ পুত্র ও তিন কন্যা তাহার প্রাপ্য অংশের মালিক হয়। কিন্তু  উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ গায়ের জোরে উক্ত তপশীলের জায়গা জবর দখল করে। বাদীগণ  তাহাদের প্রাপ্য জায়গা পরিমাপ করিয়া বুঝিয়া দেবার কথা বলিলে বিবাদীগণ অশস্নীল ভাষায় গালিগালাজ সহকারে মারার জন্য উদ্যত হয় এবং বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে।বাদীগণ স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদীগণ নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------২৪/০৯/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ শাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং৩১৭৪/২৪৬৫ দাগ নং১২৭৩০/১২৭২৯

বি,এস খতিয়ান নং   ৩১১০/৩১১১দাগ নং ১৬৮৯৫/১৬৮০৬/১৬৮০৫

সর্বমোট ৩০ শতক বা ১৫গন্ডা

 

 

 

 

 

   বরাবরে,

        চেয়ার‌্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

         পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব মোঃ মনছুর  পিতাঃ মফিজুর রহমান, সাংশাহমীরপুর (মৌলানা ছিদ্দিক আহমদের

      বাড়ী) ,ওয়ার্ড  নংঃ০৬,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম।   

     

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ রমজান আলী পিতাঃ মৃত মোহাম্মদ ইছহাক

                    ২.জনাব খুরশিদা বেগম স্বামীঃ মোঃ রমজান আলী

         সাংশাহমীরপুর (মৌলানা ছিদ্দিক আহমদের বাড়ী),ওয়ার্ড  নংঃ ০৬,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ   

        চট্টগ্রাম।

 

১) বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় ছেলে  হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম ঝগড়াটে, , নিষ্ঠুর ও বেপরোয়া প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) বিগত ২৯/০৯/২০১২ ইংরেজী রাত ৮ ঘটিকায় বাদী টিউশনী করিয়া ঘর হইতে বাহির হইলে উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ পূর্ব শত্রম্নতার জের ধরে বাদীকে কোন কথা বলার সুযোগ না দিয়া এলোপাতাড়ী  ঝাড়ু দিয়া আঘাত  করিলে বাদীর শরীর রক্তাক্ত করে। বাদীর আর্ত চিৎকার করিয়া বাদীর পিতার এগিয়া গিয়া বাদীকে উদ্ধার করে। উক্ত বিবাদীগণ বাদীকে পিতাকে অশস্নীল ভাষায় গালিগালাজ করিয়া মারার জন্য চেষ্টা করে। উক্ত বিবাদীগণ বাদী ও বাদীর পিতাকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে। বাদী উক্ত ঘটনার কথা স্থানীয় মহিলা মেম্বার জনাবা ছানোয়ারা বেগমকে অবহিত করিলে তিনি মীমাংসার জন্য বিবাদীগণের বাড়ীতে গেলে বিবাদীগণ মহিলা মেম্বারের উপস্থিতিতে বাদী ও বাদীর পরিবারকে অশস্নীল ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে। বাদী ও বাদীর পরিবার বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগিতেছে।। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া      

       উক্ত ঘটনার  সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠুভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

   

        ইতি-------------------------------------০১/১০/২০১২ইংরেজী

 

   

 

 

    

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ ১.জনাব আবদুর নুর পিতাঃ মৃত আলা মিয়া,

             ২.জনাব মোঃ হারম্নন পিতাঃ মৃত আহমদ ছফা সাংশাহমীরপুর (হায়দার আলী মুন্সির বাড়ী ),    

            ওয়ার্ড  নং  ঃ০৫,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম

     

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোজাফ্ফর আহমদ পিতাঃ মৃত আবদুল হাকিম

                    ২.জনাব মোঃ খোরশেদ পিতাঃ মৃত আনোয়ার আহমদ

                    ৩.জনাব মোঃ এনাম পিতাঃ ঐ

                    ৪. জনাব মিন্টু পিতাঃ মৃত কবির আহমদ

সর্বসাংশাহমীরপুর,(হায়দার আলী মুন্সির বাড়ী ) ,ওয়ার্ড  নংঃ০৫,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম

       

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

১)বাদী  সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদী এর মৌরশী মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জায়গা বাদীগণের পিতার দখলে স্থিত ছিল। বাদীর পিতার মৃত্যুর পর উক্ত তপশীলের জায়গা হইতে ৮ গন্ডা জায়গা উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ গায়ের জোরে দখল করে  বাদীগণ পরিমাপ করিয়া তাহাদের প্রাপ্য অংশ বুঝিয়া দেবার কথা বলিলে  বিবাদীঘণ নানা প্রকার হুমকি প্রদানসহ  কটুক্তিমূলক কথা বলিতে থাকে । বাদী  স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদীগণ নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠুভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------০৪/১০/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ শাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং৪/২৪৪৯/৩৩০৬/ দাগ নং৪৬৭৩/৪৬৭৪/৪৬৭২/৪৬৭১

বি,এসখতিয়ান নং৮৭৬/১১৬/৮৭৫/২০৭২ দাগনং ৭২৩২/৭২২৪/৭২২৭/৭২২৮/৭২৩৯/ ৭২২৯/৭২৩০

 সর্বমোট ৩২শতক বা ১৬ গন্ডা

   বরাবরে,

        চেয়ার‌্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

         পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব মোঃ ইউছুপ  পিতাঃ মৃত আবদুল খালেক, সাংশাহমীরপুর (লাল মতি বাপের বাড়ী)) ,ওয়ার্ড    নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম।   

         

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব নুর মোহাম্মদ পিতাঃ মৃত আবদুল খালেক

                   ২.জনাব মোঃ শফি পিতাঃ ঐ সাংশাহমীরপুর (লাল মতি বাপের বাড়ী) ,ওয়ার্ড    

                   নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম।   

 

 

১) বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় ছেলে  হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম ঝগড়াটে,  লোভী ও বেপরোয়া প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) উপরে বর্ণিত বাদী ২নং বিবাদীর নিকট ২০,০০০.০০ (বিশ হাজার) টাকা পাওনা হয়। উক্ত পরশোধের ব্যাপারে  ১নং বিবাদী জামিনদার হয়। বাদী বিগত ২৮/০৯/২০১২ ইংরেজী সকাল ৯ ঘটিকায়১নং বিবাদীর নিকট টাকা চাহিলে বাদী সহিত উক্ত বিবাদীর কথা কাটকাটি হয়। উক্ত সময় ২নং বিবাদী আসিয়া ইট দিয়া বাদীর মাথায় আঘাত করিয়া রক্তাক্ত জখম করে। বাদীর আর্তনাদ শুনিয়া এলাকার লোকজন এগিয়া আসিলে উপরে বর্ণিত বিবাদীঘণ পালিয়া যায়। উক্ত বিবাদীগণ কোন প্রকার মামলা মোর্কদ্দমা না করার জন্য হুমকি প্রদান করে। বর্তমানে বাদী ও বাদীর পরিবার বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগিতেছে।। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া      

       উক্ত ঘটনার  সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠুভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

   

        ইতি-------------------------------------০৪/১০/২০১২ইংরেজী

 

   

 

 

 

 

 

            বরাবরে,

        চেয়ার‌্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

         পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাবা সেলিনা আকতার  পিতাঃ মৃত কবির আহমদ, সাংদৌলতপুর (এহসান আলী মাঝির  

      বাড়ী) ,ওয়ার্ড  নংঃ০১,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।   

         

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব বদিউল আলম  পিতাঃ মৃত নুরম্নল আলম

      সাংশাহমীরপুর (বাদামতল উত্তর পাশে নতুন বাড়ী) ,ওয়ার্ড নংঃ০৪,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম।       

              

১) বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় ছেলে  হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম ঝগড়াটে,  লোভী ও বেপরোয়া প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) উপরে বর্ণিত বাদী চট্টগ্রাম শহরস্থ কামাল ইশকে মোসত্মফা (সাঃ) মহিলা মাদ্রাসায় ৬ষ্ঠ শ্রেনীতে লেখাপড়া করে। উপরে বর্ণিত বিবাদী প্রায় সময় বাদীকে রাসত্মাঘাটে এবং যাতায়াতের পথে নানা কটুক্তিমূলত কথাবার্তা বলিত এবং বিরক্ত করিত। ফলে বাদীর অভিভাবকগণ বাদীকে নিজ বাড়ীতে নিয়ে আসে। গত ২৪/০৯/২০১২ ইংরেজী সকাল ৮.০০ঘটিকায় বাদীকে তাহার বোনের বাড়ী হইতে   নানা প্রকার মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়া নিয়া যাওয়ার পথে  ফাজিলখার হাটে বাদীর দেখিতে পাইয়া বাদী ও বিবাদীকে বাদীর বাড়ীতে নিয়া যায়।  বাদীর অভিভাবকগণ বিষয়টি  স্থানীয় গন্যমান্য অবহিত করিলে তাহারা বিবাদীর অভিভাবকগণকে বিষয়টি জানায়। তাহারা আসিয়া মীমাংসার কথা বলিয়া বিবাদী নিয়া যায়। কিন্তু অদ্যাবধি তাহারা কোন প্রকার যোগাযোগ করে নাই  । বর্তমানে বাদী ও বাদীর পরিবার বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগিতেছে।। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া      

       উক্ত ঘটনার  সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠুভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

   

        ইতি-------------------------------------০৪/১০/২০১২ইংরেজী

 

   

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

        বিষয়ঃ সময়ের জন্য আবেদন ।

          বাদীঃ জনাব মোঃ আবদুলস্নাহ চৌধুরী পিতাঃ মৃত ওবায়দুর রহমান চৌধুরী সাং বড়ঊঠান ,ওযার্ড

        নংঃ০৩,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                                      বনাম

    বিবাদীঃ ১.জনাব জালাল আহমদ  পিতাঃ মৃত  আবুল খায়ের    

        ২. জনাব ইউনুছ রানা  পিতাঃ ছিদ্দিক আহমদ

        সর্বসাং বড়উঠান ,ওয়ার্ড নংঃ০৮ ,থানাঃ পটিয়া, জেলাঃ চট্টগ্রাম।

         ৩.বাবু শিবু ধর পিতাঃ মৃত মনোরঞ্জন ধর

         ৪. জনাব মিলন ধর(পুলু ধর) পিতাঃ ঐ

         সর্বসাংদৌলতপুর ,ওয়ার্ড নংঃ০৩,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 জনাব,

       আমরা নিমণ স্বাÿরকারী উপরে বর্নিত মামলার বিবাদী হই। আগামী ১১/১০/২০১২ইংরেজী তারিখে উক্ত মামলার তারিখ ধার্য হয়। মামলার বিষয় জায়গা-জমি সংক্রামত্ম হওয়ায় সার্ভেয়ারসহ উপস্থিত থাকার জন্য বলা হয়। কিন্তু আমাদের মনোনীত সার্ভেয়ার উক্ত তারিখে উপস্থিত থাকতে পারছেনা বিধায় আমাদেরকে পনের দিনের সময় প্রদানের জন্য আপনার নিকট সবিনয় অনুরোধ করা হলো।       

 

                                                               

                                                                                       

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবেদন।

বাদীঃ জনাব মোঃ ইসমাইল হোসেন পিতাঃ মৃত ছিদ্দিক আহমদ(বড়বাড়ী) সাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ৪৬,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং০১৮১৯-২৮০৩২৫

                                      বনাম

বিবাদীঃ ১.জনাব এয়ার মোহাম্মদ(নুনু মিস্ত্রি) পিতাঃ মৃত আমজু মিয়া

          সর্বসাং শাহমীরপুর ,ওযার্ড নংঃ০৪,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

জনাব,

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

9)     বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

10) নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বিবাদীর খরিদামূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের  জায়গা  হইতে বাদীর নিকট বিক্রির জন্য নুরম্ন  মুন্সির মধ্যস্থতায় মৌখিকভাবে বাদীর সহিত বিবাদীর কথাবার্তা চুড়ামত্ম হয়। সেই মোতাবেক বাদী উক্ত বিবাদীর বরাবরে কিছু টাকা প্রদান করে। কিছুদিনের মধ্যে অবশিষ্ট টাকা গ্রহণ করিয়া উক্ত জায়গা  বাদীর নামে রেজিষ্ট্রি দেওয়ার জন্য বিবাদী অঙ্গীকার করে। প্রায় এক বছর অতিবাহিত হবার হইলে বিবাদী অবশিষ্ট টাকা গ্রহণ করছে না এবং উক্ত জায়গা রেজিষ্ট্রি প্রদানের কোন ব্যবস্থা করছে না। এই বিষয়ে বাদী বিবাদীকে অবশিষ্ট টাকা গ্রহণ করিয়া রেজিষ্ট্রি প্রদানের জন্য অনুরোধ করিলে বিবাদী নানা কটুক্তি মূলক কথাবার্তা বলিতে থাকে এবং বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে। স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------১০/১০/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃশাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং ১৯৮৩/ ৯৩৩/৪৬৪/৯৩২/৫২৪৬/৫৫২ দাগ নং ৭০৯২/৭০৯৭/ ৫২১৭/ ৫২৮৪/ ৫২১৬/৫২৪৬/৫২৫২

সর্বমোট ১১ শতক বা সাড়ে ৫ গন্ডা

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

        বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবেদন।

          বাদীঃ জনাব মোঃ আলম চৌধুরী পিতাঃ মৃত দলিলুর রহমান চৌধুরী সাং বড়ঊঠান ,ওয়ার্ড

        নংঃ০৮,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                                      বনাম

    বিবাদীঃ ১.জনাব নুরম্নল আলম চৌধুরী  পিতাঃ মৃত  দলিলুর রহমান চৌধুরী

             ২. জনাবা মর্জিয়া বেগম স্বামীঃ ঐ

             ৩.জনাব নুরল আবছার চৌধুরী (মুরাদ) পিতাঃ ঐ সর্বসাং বড়ঊঠান ,ওয়ার্ড

              নংঃ০৮,থানাঃ পটিয়া ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

জনাব

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

১)বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদীগণ অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২) নিমণবর্নিত তপশীলের জায়গা বাদীর খরিদা সূত্রে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জায়গা বাদীর দখলে স্থিত আছে। উক্ত তপশীলের জায়গা হইতে বাদীর প্রয়োজনে ২ গন্ডা বিক্রি করার জন্য

 বড়উঠান গ্রামের মোঃ আবদুলস্নাহ চৌধুরী সহিত রেজিষ্টি  বায়নামা সম্পাদন করে। পরিমাপ করিয়া বাদী খরিদার বরাবরে বুঝিয়া দিতে গেলে উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ বাধা প্রদান করে এবং বাদীকে অশস্নীল ভাষায় গালিগালাজ সহকারে মারার জন্য চেষ্টা করে। বাদীর পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত সম্পত্তি ব্যবহার করিতে গেলে উক্ত বিবাদীগণ বাধা প্রদান এবং বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে। স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

  করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠুভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------১৩/১০/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃবড়উঠান

আর,এস খতিয়ান নং ১৩৫০/১৩৩৮/৬৫৪/ ৬০৫ দাগ নং ২৯৮৮/২৯৮৯/২৯৬৩/২৯৭৯/২৯৮০/ ২৯৮৭/২৯৮৬/২৯৮১

বি,এস,খতিয়ান নং ২১৭/৭২২/২১৯/১২৭৭/২২০ দাগ নং ২৩১৩/২৩৩২/২৩২২/২৩১৪/২৩১৫/২৩০৩/ ২৩০৪/ ২৩০৫

সর্বমোট ৩৪ শতক বা ১৭ গন্ডা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ বাদীর মৌরশী সম্পত্তি জবর দখলকারীদের বিরম্নদ্ধে প্রতিকার প্রসঙ্গে।

      বাদীঃ১.বাবু টুনটু শীল পিতাঃ মৃত কবির আহমদ

          সাং দৌলতপুর,ওয়ার্ড নংঃ০৩, থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব আবদুল মাবুদ পিতাঃ মৃত মহেন্দ্র লাল শীল

                   ২.জনাব বাদশাহ মিয়া গং পিতাঃ মৃত হাবীবুর রহমান

                  ৩.জনাব মোঃ জামাল মিয়া গং পিতাঃ জেবল হোসেন (আবুল হোসেন)       

                 সর্বসাং দৌলতপুর,  ওয়ার্ড  নংঃ০৩,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম

        

 

১)বাদী  সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না।নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদী এর মৌরশী মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। উক্ত তপশীলের জায়গা বাদীর দখলে স্থিত ছিল। বাদীর পিতার মৃত্যুর পর উক্ত তপশীলের জায়গা  উপরে বর্ণিত বিবাদী সম্পূর্ণ গায়ের জোরে দখল করে।।  বাদী পরিমাপ করিয়া তাহার প্রাপ্য অংশ বুঝিয়া দেবার নানা প্রকার হুমকি প্রদানসহ  কটুক্তিমূলক কথা বলিতে থাকে । বাদী  স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------৩০/০১/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ দৌলতপুর

আর,এস খতিয়ান নং ১৮৮ দাগ নং৪২০৬/৪২১৬/৪২১৭/৪২১৮/৪২২২/৪২২৬/ ৪২২৮/ ৪২২৯/ ৪২৩০/৪২৩১/৪২৩২/৪২৩৩/৪২৩৪/৪২৩৫/

বি,এস খতিয়ান নং ১৮৩৯ দাগনং ৪৮৩৬/ ৪৮৩৭/৪৮৩৮/৪৮৩৯/৪৮৪০/৪৮৪১/ ৪৮৪২/৪৮৪৩ /৪৮৪৪/৪৮৪৫/৪৮৪৫/৪৮৪৬ /৪৮৪৭

 উপরে বর্ণিত খতিয়ানভূক্ত দাগাদির অমর্ত্মভূক্ত বিরোধীয় জায়গা

 

 

 

 

 

   বরাবরে,

        চেয়ার‌্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

         পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব মোঃ আবু ছালেহ  পিতাঃ মৃত মোঃ ইউনুচ, সাংদৌলতপুর (মির্জা মোঃ আলী তালুকদার বাড়ী ) ,ওয়ার্ড  নংঃ০২,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।   

         

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ ঈসা পিতাঃ মৃত মোঃ ইউনুচ

                   ২.জনাব মোঃ জোনায়েদ পিতাঃ মৃত আবদুল মজিদ

                  ৩.জনাবা মোছাম্মৎ কাউছার বেগম পিতাঃ মৃত মোঃ ইউনুচ

                  ৪.জনাবা মোছাম্মৎ সীমা আকতার পিতাঃ ঐ

                 সাংদৌলতপুর (মির্জা মোঃ আলী তালুকদার বাড়ী ) ,ওয়ার্ড  নংঃ০২,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ    

                     চট্টগ্রাম।   

   জনাব

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

           

১) বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় ছেলে  হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম হিংসুটে,  লোভী ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ বাদীর ভাই -বোন হয় । বিগত ০৭/০/১০/২০১২ ইংরেজী সন্ধ্যা ৭ টার সময় গুরম্নত্বপূর্ণ কথা আছে বলিয়া উপরে বর্নিত ৩নং ৪ নং বিবাদী বাদীকে গাবতলের দোকান হইতে ডাকিয়া নিয়া যায়।  বাদী সরল বিশ্বাসে তাহাদের সাথে বাড়ীতে গেলে উপরে বর্নিথ বিবাদী লাঠি দিয়া আঘাত করিয়া জখম করে । বাদী মাটিতে পড়িয়া গেলে  ২নং বিবাদীর পকেটে থাকা ১৫০০০.০০ (পনের হাজার) টাকা এবং অপর বিবাদীগণ ১ টি মোবাইল ফোন  ছিনিয়া নেয়। স্থানীয় লোকজন আসিয়া বাদীকে উদ্ধার করে। বাদী উক্ত টাকা কোরবানের গরম্ন কেনার জন্য এনেছিলেন।  উক্ত বিবাদীগণ বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে  এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া      

       উক্ত ঘটনার  সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠুভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

   

        ইতি-------------------------------------১৫/১০/২০১২ইংরেজী

 

   

বরাবরে,

        চেয়ার‌্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

         পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব মোঃ আবদুল আজিজ  পিতাঃ মৃত মকবুল আহমদ, সাংশাহমীরপুর (হায়দার আলী

      মুন্সির বাড়ী ) ,ওয়ার্ড  নংঃ০৫,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।   

         

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাবা সেলিনা আকতার পিতাঃ মৃত নুরম্নল ইসলাম

       সাং কুসুমপুরা (গরীব সর্দারের বাড়ী), বর্তমান থানা মহিরা ( যোগি পুকুর পাড়) ওয়ার্ড  নং    

       ঃ০২,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।       

                    

  জনাব

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

           

১) বাদী একজন সহজ-সরল , নিরীহ, শামিত্মপ্রিয় লোক হয়  হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম ঝগড়াটে,  লোভী ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) উপরে বর্ণিত বিবাদী বাদীর স্ত্রী হয়। বাদীর সহিত বিবাদীর পারিবারিক মনোমালিন্যের জের ধরিয়া বিগত ০৫/১০/২০১২ ইংরেজী  তারিখে উপরে বর্ণিত বিবাদী  গোপনে বাদীর ঘর হইতে পালিয়া যায়। যাবার সময় টাকা পয়সা, স্বর্ণাংলকার, কাপড় চোপড় নিয়া যায়। বাদী ঘরে আসিয়া বিবাদী দেখিতে  না পাইয়া আশে পাশে খোজাঁ খুজি  করে। কোথাও না পাইয়া বিবাদী বাপের বাড়ীতে যোগাযোগ করিয়া জানিতে  পারে বিবাদী সেখানে অবস্থান করিতেছে। বাদী  তাহার বাড়ীতে চলে আসার জন্য বিবাদীকে অনুরোধ করিলে বিবাদী নানা কটুক্তিমূলক কথাবার্তা বলিতে থাকে এবং বাদীকে  বিভিন্ন মামলা মোকর্দ্দমাসহ নানা প্রকার  ভয়ভীতি দেখাইয়া হুমকি প্রদান করে  এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া      

       উক্ত ঘটনার  সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠুভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

   

        ইতি-------------------------------------১৭/১০/২০১২ইংরেজী

 

   

 

 

   বরাবরে,

        চেয়ার‌্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

         পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব দিবস কামিত্ম দে  পিতাঃ মৃত পবন বাশিঁ দে, সাং বড়ঊঠান (বক্ত পাড়া ) ,ওয়ার্ড  নং  

     ঃ০৯,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।   

         

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ আবদুল গণি পিতাঃ মৃত রশিদ আহমদ জনাব দিবস কামিত্ম দে  পিতাঃ ,   

           সাং বড়ঊঠান (কালা ফকিরের বাড়ী) ,ওয়ার্ড  নংঃ০৯,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।   

              

   জনাব

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

           

১) বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ , শামিত্মপ্রিয় লোক  হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম হিংসুটে,  লোভী ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) উপরে বর্ণিত বিবাদী বাদী পুকুরের পাশের জমিতে বর্গা চাষ করে।  উক্ত বিবাদী বিগত ১১/০/১০/২০১২ ইংরেজী  তারিখে বাদীর দখলীয় জায়গায় স্থিত গাছপালা কাটিয়া বাড়ীতে নিয়া যায়। বাদী জানিতে পারিয়া বিবাদীকে জিজ্ঞাসা করিলে বিবাদী রাগান্বিত হইয়া পরের দিন সম্পূর্ণ গাছ পালা কাটিয়া ফেলে। বাদী বাধা প্রদান করিলে উক্ত বিবাদীকে অশস্নীল ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে।  একপর্য়ায়ে বাদীকে  মারার জন্য চেষ্টা করে এবং  বিাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া      

       উক্ত ঘটনার  সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠুভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

   

        ইতি-------------------------------------১৭/১০/২০১২ইংরেজী

 

   

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

       পটিয়া,চট্টগ্রাম।

       বিষয়ঃ বাদীর মৌরশী সম্পত্তি জবর দখলকারীদের বিরম্নদ্ধে প্রতিকার প্রসঙ্গে।

      বাদীঃ১. জনাব ছৈয়দ নুরম্নল ইসলাম পিতাঃ মৃত ছৈয়দ নুরম্নল হক

          সাং দৌলতপুর,ওয়ার্ড নংঃ০২, থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম। মোবাইল নং

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ রফিক পিতাঃ মৃত মোঃ আনোয়ার

                 সর্বসাং শাহমীরপুর,  ওয়ার্ড  নংঃ০৫,থানাঃ কর্ণফুলী, জেলাঃ চট্টগ্রাম

        

 

১)বাদী  সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম লোভী, জুলুমবাজ ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

২)নিমণবর্ণিত তপশীলের জায়গা বাদী এর খরিদা মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তি হয়। বাদী নানা কাজে ব্যসত্ম থাকার কারনে উক্ত তপশীলের জায়গা  উপরে বর্ণিত বিবাদী সম্পূর্ণ গায়ের জোরে দখল করে।  বাদী পরিমাপ করিয়া তাহার প্রাপ্য অংশ বুঝিয়া দেবার নানা প্রকার হুমকি প্রদানসহ  কটুক্তিমূলক কথা বলিতে থাকে । বাদী  স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করিয়া ব্যর্থ হয়।এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

             অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব   

            করিয়া উক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।

        ইতি-------------------------------------১৩/১০/২০১২ইংরেজী

 

তপশীলঃ

মৌজাঃ শাহমীরপুর

আর,এস খতিয়ান নং ১৯৩২ দাগ নং ৭১১১

বি,এস খতিয়ান নং ১০৬১ নামজারী খতিয়ান নং ৫৪১৭ দাগনং ৮৫১৪

 উপরে বর্ণিত খতিয়ানভূক্ত দাগাদির অমর্ত্মভূক্ত বিরোধীয় জায়গা

 

 

 

 

 

   বরাবরে,

        চেয়ার‌্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

         পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সময়ের  জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব মোঃ ইউছুপ  পিতাঃ  আবদুল খালেক,

      সাংশাহমীরপুর (লাল মতি বাপের বাড়ী)),ওয়ার্ড    নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম।   

         

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব নুর মোহাম্মদ পিতাঃ আবদুল খালেক

                   ২.জনাব মোঃ শফি পিতাঃ ঐ

        সাংশাহমীরপুর (লাল মতি বাপের বাড়ী) ,ওয়ার্ড নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম।   

 

জনাব

সবিনয় নিবেদন এই যে, আমি নিমণস্বাÿরকারী নুর মোহাম্মদ পিতাঃ আবদুল খালেক,সাংশাহমীরপুর (লাল মতি বাপের বাড়ী) ,ওয়ার্ড নংঃ০৭,থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম- আপনার গ্রাম আদালতের মামলা নং ১৩৭/১২ এর বিবাদী হই। অদ্য উক্ত মামলার বিষয়ে নিষ্পত্তির লÿÿ্য হাজির হওয়ার জন্য  তারিখ ধার্য হয়। আমি আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। কিন্তু বড় পরিতাপের বিষয় যে, আমার  পিতা শারীরিকভাবে খুবই অসুস্থ বিধায় বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসারত অবস্থায় আছে।তাই অদ্য ধার্য তারিখে হাজির থাকা আমার পÿÿ সম্ভব হচ্ছে না।

 

               অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, আমাকে পনের দিনের সময় মন্জুর করিয়া বাধিত করবেন।

 

                                                                                       নিবেদক

তারিখঃ২০/১০/২০১২ইং                                                                                                       

                                                                                          নুর মোহাম্মদ

                                                                                      পিতাঃ আবদুল খালেক,

                                                                                      সাংশাহমীরপুর

                                                                                    (লাল মতি বাপের বাড়ী) ,

                                                                                   ওয়ার্ড নংঃ০৭,

                                                                               থানাঃ কর্ণফুলী,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

 

 

 

 

 

   বরাবরে,

        চেয়ার‌্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

         পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব দিবস কামিত্ম দে  পিতাঃ মৃত পবন বাশিঁ দে, সাং বড়ঊঠান (বক্ত পাড়া ) ,ওয়ার্ড  নং  

     ঃ০৯,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।   

         

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ আবদুল গণি পিতাঃ মৃত রশিদ আহমদ ,   

           সাং বড়ঊঠান (কালা ফকিরের বাড়ী) ,ওয়ার্ড  নংঃ০৯,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।   

              

জনাব

সবিনয় নিবেদন এই যে, আমি নিমণস্বাÿরকারী জনাব মোঃ আবদুল গণি পিতাঃ মৃত রশিদ আহমদ সাং বড়ঊঠান (কালা ফকিরের বাড়ী) ,ওয়ার্ড  নংঃ০৯,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।- আপনার গ্রাম আদালতের মামলা নং ১৩৮/১২ এর বিবাদী হই। অদ্য উক্ত মামলার বিষয়ে নিষ্পত্তির লÿÿ্য হাজির হওয়ার জন্য  তারিখ ধার্য হয়। আমি আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। আমার পারিবারিক কাজ থাকায় অদ্য ধার্য তারিখে হাজির থাকা আমার পÿÿ সম্ভব হচ্ছে না।

 

               অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, আমাকে পনের দিনের সময় মন্জুর করিয়া বাধিত করবেন।

 

                                                                                       নিবেদক

তারিখঃ২০/১০/২০১২ইং                                                                                                       

।                                                                                    জনাব মোঃ আবদুল গণি                            

                                                                                     পিতাঃ মৃত রশিদ আহমদ         

                                                                                  সাং বড়ঊঠান

                                                                                     (কালা ফকিরের বাড়ী)               

                                                                                         ,ওয়ার্ড  নংঃ০৯, 

                                                                                থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।-

 

 

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ার‌্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

         পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব মোঃ কামাল উদ্দীন  পিতাঃ মৃত আহমদ মিয়া, সাংশাহমীরপুর (উজির খাঁ চৌধুরী) ,    

      ওয়ার্ড  নংঃ০৫,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।   

         

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব আবদুল করিম পিতাঃ আবদুর রশিদ

                  ২.জনাব মোঃ মানিক পিতাঃ অজ্ঞাত মাতাঃ

                 ৩. জনাব আবদুল মন্নান পিতাঃ মৃত আহমদ  মিয়া সাংশাহমীরপুর (শেখরাজার বাড়ী) ,   

                 ওয়ার্ড  নংঃ০৪,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                ৪.জনাব মোঃ ফরিদ পিতাঃ নুরম্নল ইসলাম (বড় মিয়া,) সাং দৌলতপুর ওয়ার্ড নং ০৩,  

                (মরা বাদশার বাড়ী) থানাঃ পটিয়া,চট্টগ্রাম  ।     

  জনাব

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

           

১) বাদী একজন সহজ-সরল , নিরীহ, শামিত্মপ্রিয় লোক হয়  হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী বখাটে,  সন্ত্রাসী ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) উপরে বর্ণিত বাদী একজন অসহায় বয়োবৃদ্ধা লোক হয়। তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। তাহার কিশোরী কন্যা রিনা আকতার দৌলতপুর উচ্চ বিদ্যালয় সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী হয়।  গত ০৫/১০/২০১২ইংরেজী সন্ধ্যা ৭.৩০ ঘটিকায় ফকিরনীরহাট রাসত্মার মাথা হইতে্ওষুধ কিনিয়া বাড়ী ফেরার পথে হালদা কবরস্থানের উত্তর পার্শ্বে কালভার্টের নিকটে পৌছিলে উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ বাদীর উক্ত মেয়েকে আটকাইয়া শস্নীলতাহানির চেষ্টা করে। বিবাদীগণ তাহাদের কুউদ্দেশ্য সাধনে ব্যর্থ হইয়া বাদীর কন্যাকে পিএবি সড়কের উপর ধাক্কা দিয়া ফেলিয়া দেয়। এই সময় সড়কের উপর চলমত্ম গাড়ী ধাক্কা লাগিয়া বাদীর কন্যার মাথার ফাটিয়া রক্তাক্ত হয় এবং পা ভাঙ্গিয়া যায়। স্থানীয় লোকজন তাহাকে উদ্ধার করিয়া হাসপাতালে ভর্তির করায়। উক্ত বিবাদীগণ অদ্যাবধি বাদীর সহিত যোগাযোগ করে নাই। মামলা মোর্কদদ্দমা না করার জন্য বাদীকে নানা প্রকার হুমকি প্রদান করে।  এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া      

       উক্ত ঘটনার  সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠুভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

   

        ইতি-------------------------------------০৬/১০/২০১২ইংরেজী

 

 

বরাবরে,

        চেয়ার‌্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

        ২নং বড়উঠান ইউনিয়ন পরিষদ,

         পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবদেন।

      বাদীঃ জনাব মোঃ হারম্নন  পিতাঃ মৃত দানা মিয়া, সাংশাহমীরপুর (এজাহার বাপের বাড়ী) ,    

      ওয়ার্ড  নংঃ ০৭,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।  মোবাইল নং-০১৮৩৪-৬৬২৯৩০ 

         

                                                  বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাব মোঃ ইদ্রিছ পিতাঃ মৃত মোঃ হারম্নন

                  ২.জনাব মোঃ ফারম্নক পিতাঃ ঐ

             সাং দৌলতপুর(গাবতল),ওয়ার্ড় নং০২, থানাঃ পটিয়া,চট্টগ্রাম  ।     

  জনাব

          সবিনয় নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বাদী নিমণবর্ণিত মতে আবেদন করে।

           

১) বাদী একজন সহজ-সরল , নিরীহ, শামিত্মপ্রিয় লোক হয়  হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী বখাটে,  সন্ত্রাসী ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) উপরে বর্ণিত বিবাদীগণ বাদীর আপন পুত্র সমত্মান হয়। বিবাদীগণ পরস্পর সৎভাই হয়। বাদী অনেক কষ্টে  লালন পালন করিয়া  তাহাদেরকে বড় করে। চার পূর্বে উপরে বর্ণিত ১নং বিবাদী বাদীর অজামেত্ম বিবাহ করিয়া দৌলতপুর গ্রামে শ্বশুর বাড়ীতে বসবাস করে। তারপর হইতে উক্ত বিবাদী বাদী কিংবা বাদীর পরিবারের সহিত কোন প্রকার যোগাযোগ করে না। গত এক মাস পূর্বে উক্ত বিবাদী  নানা প্রকার কুপরামর্শ দিয়া বাদীর অপর পুত্র ২নং বিবাদীকে (বিবাদীর সৎভাই) তাহার শ্বশুর বাড়ী দৌলতপুরে নিয়া আসে। এর কয়েকদিন পরে বাদী তাহার পুত্র ২নং বিবাদীকে আনিতে গেলে উপরে বর্ণিত ১নং বিবাদী বাদীকে অশস্নীল ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে এবং বাদী নাজেহাল করে। তাহার প্ররোচনায় ২নং বিবাদী বাদীকে কিল,ঘুষি মারিয়া রক্তাক্ত জখম করে। স্থানীয় লোকজন আসিয়া বাদীকে উদ্ধার করিয়া বাড়ীতে পাঠিয়া দেয়। বাদী স্থানীয় মেম্বার সাহেবদের অবহিত করিলে তাহারা অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হওয়ার জন্য পরামর্শ দেন। এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

        অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে নোটিশযোগে তলব করিয়া      

       উক্ত ঘটনার  সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠুভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন। 

   

        ইতি-------------------------------------৩১/১০/২০১২ইংরেজী

 

 

 

বরাবরে,

        চেয়ারম্যান সাহেব,

        গ্রাম আদালত,

       ১নং চরলÿ্যা ইউনিয়ন পরিষদ,

        পটিয়া,চট্টগ্রাম।

         বিষয়ঃ সুষ্ঠুভাবে বিচারের জন্য আবেদন।

      বাদীঃ জনাব মোঃ জসিম উদ্দীন পিতাঃ মোঃ ইদ্রিছ মিয়া, সাং চরলÿ্যা   

            ওয়ার্ড  নংঃ০২,থানাঃ কর্ণফুলী ,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

                                      বনাম

          বিবাদীঃ ১.জনাবা মোছাম্মৎ এমরিনা আকতার(হেনা) পিতাঃ মোঃ আনোয়ার হোসেন

                   ২.জনাব মোঃ আনোয়ার হোসেন পিতাঃ অজ্ঞাত

                সাং বড়উঠান ওয়ার্ড নংঃ ০৮,থানাঃ পটিয়া,জেলাঃ চট্টগ্রাম।

 

১) বাদী একজন সহজ-সরল ,নিরীহ ও শামিত্মপ্রিয় লোক হয়। দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি সদা শ্রদ্ধাশীল। পÿামত্মরে বিবাদী অত্যমত্ম ঝগড়াটে ও বেপরোয়া প্রকৃতির লোক হয়। দেশের আইন-কানুনের তোয়াক্কা করে না। নিমণবর্ণিত ঘটনাই তাহার উৎকৃষ্ট প্রমাণঃ

 

২) বিগত ১৭/০৫/২০১২ ইংরেজী তারিখে উপরে বর্ণিত বাদীর সহিত ১নং বিবাদীর ইসলামী শরা-শরীয়ত ও কাবিননামা মূলে বিবাহ সম্পন্ন হয়। বিবাহের পর  বাদী ও বিবাদী সুখে শামিত্মতে বসবাস করিতে থাকে। কিন্তু পরবর্তীতে উক্ত বিবাদীর আসল চেহারা ধরা পড়ে। বাদী ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের উপর নানা প্রকার মানসিক নির্যাতন করিয়া আসিতেছে। উক্ত বিবাদী সংসারের প্রতি উদাসীন থাকে। সাংসারিক কাজ কর্ম করিতে উক্ত বিবাদী অনীহা প্রকাশ করে। বাদী মান সন্মান ও  ভবিষতের কথা ভাবিয়া  উক্ত বিবাদীর সমসত্ম অপরাধ সহ্য করিয়া আসিতেছে। কিন্তু দিন দিন উক্ত বিবাদীর অপরাধের মাত্রা বাড়িতেছে। যাহার প্রেÿÿতে বাদী শাসন করিতে গেলে উক্ত বিবাদী বাদীকে নাজেহাল করে। উক্ত বিষয়ে বাদী বিবাদীর অভিভাবকগণকে বার বার অভিহিত করার পরও তাহারা  কোন পদÿÿপ নেয় নাই। গত ০৪/১০/২০১২ ইংরেজী তারিখে বাদী ব্যবসার কাজে ব্যসত্ম থাকা অবস্থায়  উপরে বর্ণিত ১নং বিবাদী  মায়ের অসুখের কথা বলিয়া তাহার ভাই মোঃ আবদুল হালিমকে সংগে নিয়া বাপের বাড়ীতে চলিয়া যায়। যাবার পর কাপড়চোপড় , স্বর্ণালংকার ও টাকা পয়সা সঙ্গে নিয়া যায়। অদ্য ০৫/১০/২০১২ ইংরেজী তারিখে বাদী  বিবাদীকে আনিতে গেলে  বিবাদীর পরিবারের লোকজন বাদীকে নানা কটুক্তিমূলক কথাবার্তা বলিয়া  নাজেহাল করে।  এমতাবস্থায় বাদী নিরম্নপায় হইয়া অত্র গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হয়।

 

          অতএব, মহোদয় বিনীত নিবেদন এই যে, উপরে বর্ণিত বিবাদীগণকে তলব করিয়া উক্ত ঘটনার  

      সত্যতা যাচাই পূর্বক সুষ্ঠহভাবে বিচার করিয়া বাধিত করিবেন।  

             

        ইতি-------------------------------------০৫/১০/২০১২ইংরেজী